শেরপুরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে সহকারী শিক্ষকের পদসংখ্যা বৃদ্ধি করে পূর্বঘোষিত ৫৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

২৩ নভেম্বর বুধবার সকাল ১১টায় শহরের চাপাতলী এলাকায় জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সামনের রাস্তায় ঘন্টাব্যাপী ওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০২০’ এর চাকরি প্রত্যাশীবৃন্দের ব্যানারে ওই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন আয়োজক কমিটির আহবায়ক মো. এমদাদুল হক, যুগ্ম আহবায়ক মো. জাকির হোসেন, মো. ময়নাল হক, মো. আনোয়ার হোসেন, মো. লোকমান হোসাইন, মো. জিয়ার রহমান, সদস্য সচিব মো. ফারুক, সদস্য আবু সামা, শাহ আলম, হোসাইন আহমেদ, মিলন মিয়া, মো, শাহিন ও আলাল উদ্দিন প্রমুখ। মানববন্ধনে শতাধিক চাকরি প্রত্যাশী অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। কিন্তু করোনার কারণে দীর্ঘ দেড় বছর এই নিয়োগ পরীক্ষা বিলম্বিত হয়। করোনাকালীন সময়ে গুটি কয়েক চাকরির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয় এবং স্বাস্থ্য ঝুঁকিজনিত কারণে ২০২০-২০২১ সালে নিয়োগ পরীক্ষা প্রায় বন্ধ থাকে।

এ সময় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয় যেসব চাকরি প্রত্যাশীর বয়স ২৮, ২৯ ও ৩০ এর কোঠায় ছিল। করোনার কারণে বিজ্ঞপ্তি এবং পরীক্ষা না থাকায় তারা বিপাকে পড়ে। এরপর ২০২২ সালের সবচেয়ে বড় নিয়োগ পরীক্ষা ছিল ‘প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০২০’। করোনাভাইরাস না হলে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া অনেক আগেই সম্পন্ন হতো। তাই ‘প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০২০’ এর বিজ্ঞপ্তিতে পদসংখ্যা উল্লেখ না থাকায় পদসংখ্যা সর্বোচ্চ বৃদ্ধির জন্য দাবি জানান তারা।

পরে তারা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেন।