নিউইয়র্কে প্রশিক্ষণ দিয়ে সরকারি চাকরির ব্যবস্থা করছেন শেরপুরের জামান

 

নিউইয়র্কে প্রবাস জীবনে অনেকে সরবে কাজ করেন অনেকে নীরবে কাজ করেন। যারা নিরবে মানুষকে সাহায্য করেন, সহযোগিতা করেন, উপহার করেন এই রকম একজন শেরপুরের চকপাঠক মহল্লার এম এ জামান। তিনি মূলত নিউইয়র্ক স্টেটে চাকরি করেন।

পাশাপাশি উইকএন্ড ও বিকেলে তিনি নিজেরে অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে নতুন ইমিগ্রান্টদের সহযোগিতা করেন নিউইয়র্ক সিটি ও স্টেটের সরকারী চাকরি পেতে। সেই সাথে ফেডারেল সরকারের চাকরিও। যারা আমেরিকায় সরকারী চাকরি করতে আগ্রহী তাদের তিনি প্রস্তুুত করেন ইন্টারভিউ এর জন্য। এর পাশাপাশি তিনি তাদের চাকরিতে নিয়োগের ব্যাপারেও সহযোগিতা করেন।

এম এ জামানের প্রতিষ্ঠানটি ছোট। ক্লাসের আকারও ছোট। অল্প শিক্ষার্থীদের তিনি পড়ান। তাদের সাথে কথা বলেন। ফলে তারা যে কোনো প্রশ্ন করার সুযোগ পান এবং বারবার চেষ্টা করেন যদি একবারে না হয়।

এম এ জামান এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচী গ্রহণ করেছেন মাত্র তিন বছর আগে। ইতিমধ্যেই ৪৬ জন প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রশিক্ষণ দিয়েছেন, তারা এখন সিটি, স্টেট ও ফেডারেল চাকরি করছেন।

জ্যাকসন হাইটসে (৭২-১০, ৩৭ এভেন্যু)-তে তার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা গেল, তরারা এই অনাড়ম্বর প্রশিক্ষণে অত্যন্ত খুশি।

এম এ জামান জানান, যদি কারো হাইস্কুল ডিপ্লোমা, ব্যাচেলর বা মাস্টার্স ডিগ্রী থাকে, তারা যাতে যোগ্যতা অনুসারে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় সাফল্য অর্জন করতে পারে সেই লক্ষ্যে প্রস্তুুত করি। তিনি বলেন তাছাড়াও যাদের একাউন্টিং এ পড়াশুনা আছে তাদের জন্য কুইকবুক, পিচট্রি, পে-রোল ও বুককিপিং এর অন্যান্য বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। পাশাপাশি বেসিক ম্যাথ এবং ইংরেজিও শিক্ষা দেয়া হয়।

উল্লেখ্য এম এ জামান নিউইয়র্ক সিটির ডিপার্টমেন্ট অব এডুকেশনে সাবসার্টিফাইট টিচার হিসাবে কাজ করেছেন। যেহেতু তিনি ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে এই কাজ করেন না, তাই শিক্ষার্থীদের অত্যন্ত স্বল্পমূল্যে প্রশিক্ষণ দেন।

 সূত্র : ইউএসএনিউজঅনলাইন.কম
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের