You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

৫ জানুয়ারি সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ করবে বিএনপি

২০১৪ সালের একদলীয় নির্বাচনের বর্ষপূর্তি পালন করতে আগামী ৫ জানুয়ারি রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে পুলিশের কাছে চিঠি দিয়েছে বিএনপি।

 

আজ (শনিবার) সন্ধ্যায় রাজধানীতে এক আলোচনা সভা থেকে দলের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

 

বিএনপির সিনিয়র এই নেতা বলেন, “আগামী ৫ জানুয়ারি আমরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার কর্মসূচি নিয়েছি। আমরা পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠিও দিয়েছি। ওইদিনে গণতন্ত্রকে হরণ করা হয়েছিলো। সেই দিবসটিতে সমাবেশ করে আমরা এর প্রতিবাদ জানাব।”

 

এই সমাবেশ সফল করার জন্য দলের নেতা-কর্মী’সহ সবাইকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান রুহুল কবির রিজভী।

 

রাজধানীতে বেইলি রোডে রোভার গালর্স গাইড হাউজ মিলনায়তনে বিএনপির অঙ্গসংগঠন জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) এর ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়।আলোচনা সভার পর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনা করে জাসাস শিল্পীরা।

 

বিজয়ের চেতনায় উদ্ধুদ্ধ হয়ে স্বদেশী সংস্কৃতিকে এগিয়ে নেয়ার আন্দোলনে সবাইকে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে রুহুল কবির রিজভী দুঃশাসন, নৈরাজ্যময় সাগরের মধ্যে আজ দেশের জনগণ পড়ে আছে। এর ফলে সমাজে অপসংস্কৃতি ঢুকছে। দেশে আজ সংঘাতের রাজত্ব চলছে। গণতন্ত্রের মূর্ত প্রতীক সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির কালিমা দেয়া হচ্ছে। সরকারের পক্ষ থেকে দিনের পর দিন তার নামে মিথ্যাচার করা হচ্ছে।

 

তিনি বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ভোটারবিহীন, প্রার্থীবিহীন নির্বাচনের পর মানুষের বাক স্বাধীনতা, নিরাপত্তা, মানবাধিকার হরণ করা হয়েছে। নদীর স্রোত না থাকলে যেমন বদ্ধ থাকে, তেমনি এ সরকার ভোটারবিহীন নির্বাচন করতে করতে গণতন্ত্রকে বদ্ধ করেছে। নদীর বদ্ধ অবস্থা কাটলে যেমন প্রবল স্রোত আসে, ঠিক তেমনি গণতন্ত্রের এ বদ্ধ অবস্থা কেটে মানুষের ভোটাধিকার, মানবাধিকার, নিরাপত্তা, দেশের টেকসই উন্নয়নের স্রোত আনতে হবে।

 

রিজভী বলেন, শহীদ জিয়া ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে নিজে যুদ্ধ করে আমাদের যেমন বিজয় এনে দিয়েছেন-তা অম্লান রাখতে হবে এবং বর্তমান নৈরাজ্যময়, দুঃশাসন, গণতন্ত্রহীন পরিবেশ থেকে দেশের জনগণকে মুক্ত করতে আর একটি বিজয় অনতে হবে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে।

 

জাসাস’র সভাপতি অধ্যাপক ড. মামুন আহমেদের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক জাকির হোসেন রোকনের পরিচালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা দেন বিএনরপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কবি আবদুল হাই শিকদার, রেজাবুদ্দৌলা চৌধুরী, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক হেলাল খান, সহসভাপতি বাবুল আহমেদ, ওবায়দুর রহমান চন্দন, সালাহউদ্দিন মোল্লা, জাহাঙ্গীর আলম রিপন, রফিকুল ইসলাম, আহসানউল্লাহ চৌধুরী, মীর সানাউল হক, হাসান চৌধুরী, শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা প্রমুখ।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!