হেল্পলাইন ১০৯ এর কার্যক্রম শক্তিশালীকরণ শীর্ষক সতেনতামূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত

নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে ন্যাশনাল টোলফ্রি হেল্পলাইন ১০৯ ও ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেলের কার্যক্রম শক্তিশালীকরণ শীর্ষক  সতেনতামূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে শেরপুরে।

‘মুজিব বর্ষের প্রত্যয় নারী ও শিশু নির্যাতন আর নয়’ এই শ্লোগানে বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ তুলশিমালায় এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব।

জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. লুৎফুল কবীরের সভাপতিত্বে ও শেরপুর ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেলের প্রোগ্রাম অফিসার অমিত শাহরিয়ার বাপ্পীর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) এটিএম জিয়াউল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এবিএম এছানুল হক মামুন, জেলা অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট নমিতা দে, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) তোফায়েল আহম্মেদ, শেরপুর পৌরসভার মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন, শেরপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ছারোয়ার জাহান, শেরপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শরিফুর রহমান,শেরপুর প্রেসক্লা‌বের সা‌বেক সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপ‌জেলার ম‌হিলা ভাইস চেয়ারম্যান সা‌বিহা জামান শাপলা প্রমুখ।

সেমিনারে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা, নারী জনপ্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, ইমাম, মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার অর্ধশতাধিক প্রতিনিধি অংশ নেয়।

সেমিনারে বক্তারা, ১০৯ এবং নির্যাতনের শিকার নারী ও শিশুর সহায়তায় নানা পরামর্শ প্রদান করা হয়। এছাড়া এই নম্বরে বিনা পয়সার কল করে সেবা নেয়া যাবে।পরিচয় গোপন রাখা যাবে।

ইতোমধ্যে অনেকেই এ সেবা গ্রহণ করে উপকৃত হয়েছেন বলে বক্তারা উপস্থিত সকলকে অবগত করেন। ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে এ সেবা নিশ্চিত করতে পারলে নারী ও শিশু নির্যাতন ও বাল্য বিবাহ বন্ধ হবে বলে অভিমত দেন অনেকেই।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।