হুইপ আতিকের শেরপুর এলাকা ত্যাগের দাবীতে নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রার্থীর অবস্থান কর্মসূচি

শেষ ধাপে অনুষ্ঠিত শেরপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক এমপির বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি ভঙ্গের অভিযোগে শেরপুর এলাকা ত্যাগের দাবীতে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে অনশন ধর্মঘট ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি ও স্বতন্ত্র (বিদ্রোহী) প্রার্থী মো. মিনহাজ উদ্দিন মিনাল। আজ মঙ্গলবার দুপুরে তিনি তার সমর্থকদের নিয়ে প্রায় দুই ঘন্টা ব্যাপী এ অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন। পরে হুইপ আতিক আগামীকাল বুধবার এলাকা ত্যাগ করে চলে যাবেন- রিটার্নিং কর্মকর্তার এমন আশ্বাসের প্রেক্ষিতে প্রার্থী মিনাল অবস্থান ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন।

এর আগে সোমবার সরকারদলীয় হুইপ হয়েও স্থানীয় সাংসদ আতিউর রহমান আতিক তার কার্যালয়ে বসে নিয়মিত নির্বাচনী বৈঠক ও নির্দেশনা দিচ্ছেন এবং তার মেয়ে সদর উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপজেলা কর্মকর্তা হয়েও বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর পক্ষে গণসংযোগে অংশগ্রহণ করছেন এমন অভিযোগে সংবাদ সম্মেলনে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন তিনি। তবে হুইপ আতিউর রহমান আতিক প্রার্থী মিনালের এসব অভিযোগ অস্বিকার করেন। সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগের ২৪ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও হুইপ শেরপুর এলাকা ত্যাগ না করায় তিনি এ অনশন ধর্মঘট পালন করেন।

অবস্থান ধর্মঘট চলাকালে স্বতন্ত্র (বিদ্রোহী) প্রার্থী মো. মিনহাজ উদ্দিন মিনালের সমর্থকরা বেলা ১২টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন এবং ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্লোগান দেন। এছাড়া তিনি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তার নিকট এ ব্যপারে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

পরে শেরপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা শুকুর মাহমুদ মিঞা সাংবাদিকদের বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিনি হুইপ আতিউর রহমান আতিকের সাথে যোগাযোগ ও কথা বলেছেন। হুইপ আতিক আগামীকাল বুধবার শেরপুর এলাকা ত্যাগ করবেন বলে তাকে (নির্বাচন কর্মকর্তা) জানিয়েছেন ও আশ্বস্ত করেছেন।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।