You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

হালুয়াঘাটে ক্যানসার আক্রান্ত শতবর্ষী ভিক্ষুকের বাঁচার স্বপ্ন

গরীবের চিকিৎসা নাই। লক্ষ লক্ষ টেহা নাই। টেহা কই পাইবাম বাবা । দুই চার টেহা মাইনসে ভিক্ষা দিলে খাইতেই লাইগ্যা যায়। ডাক্তারের কাছে যাইবার পাইনা। যামু কেমনে। একবড়ি খাইলে লাগে ৫০ টেহা। আমাগর মতো গরীবের কি চিকিৎসা আছে? বাবা আমার ঘরে দুইডা পুলা তাও প্রতিবন্ধি। পুলার ঘরে একটা নাতী অইছে হেইডাও প্রতিবন্ধি। আমার তো বাঁচার স্বপ্ন আছে। এই বৃদ্ধ বয়সে আমার আর কিছুই রইলোনা। মরন ব্যাধি ক্যানসারে আমি ভুগতাছি বাবা। আইনেতো আমারে আরেকবার কয়ডা টেহা দিছিলাইন, আজকে কয়ডা টেহা দিবাইন? এমনি বুকফাঁটা আর্তনাদের সাথে হৃদয়ের মর্মস্পর্শী বেদনার কথা এই প্রতিবেদকের কাছে ব্যক্ত করেন হালুয়াঘাট উপজেলার স্বদেশী ইউনিয়নের ঘাঁসীগাঁও গ্রামের ক্যানসারে আক্রান্ত শতবর্ষী বৃদ্ধা ভিক্ষুক ইন্নছ আলী। তার পিতা মৃত-আব্দুল জলিল আকন্দ। প্রতিবন্ধি দুই ছেলে আর এক মেয়ে রয়েছে তার। এই বৃদ্ধাও বাঁচতে চাই। মরনকে সামনে জেনেও বাঁচার স্বপ্ন তাকে তাড়িত করছে। চোখগুলো নিস্ফল হাহাকার করে তাকিয়ে রয়। নির্ভাক সুর। শুধুই বাঁচার কাকুতি। জীবন সায়াহ্নের শেষ প্রান্তে এসেও এই সমাজে ৮-১০ জন সুখী মানুষের মতো সেও সুস্থ হয়ে উঠতে চান।কিন্তু প্রকৃতির নিয়তি তাকে কোথায় নিয়ে দাঁড় করাবে, তা শুধু নিস্ফল হাহাকার করা ছাড়া আর কিছুই নয়। তিনি সমাজের বিত্তবানদের কাছে সহযোগিতা কামনা করেছেন। কোন সু’হৃদয়বান ব্যক্তি থাকলে তাকে তার পুত্র রফিকুল ইসলাম (যার মোবাইল নং-০১৯১০০৫৪১৯৪) এর নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্যে অনুরোধ করেছেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!