শ্রীবরদীতে সাবেক সেনা সদস্য চানের দাফন সম্পন্ন

শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার খড়িয়া কাজীরচর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য প্রয়াত আক্তার হোসেন চানের নামাজে জানাজা শেষে তার মরদেহ সামরিক কায়দায় পারিবারিক কবরাস্থানে বুধবার সকালে দাফন করা হয়েছে। খড়িয়া কাজীরচর ইউনিয়ন বোর্ডের সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রয়াত কফিল উদ্দিন মাস্টার এর তৃতীয় ছেলে অবসরপ্রাপ্ত আক্তার হোসেন চান বার্ধক্য জনিত কারণে তার নিজ বাড়িতে মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে ইন্তেকাল করেন । মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

খড়িয়াকাজীর ঈদগাহ মাঠে জানাজা শেষে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল সেনানিবাসের ওয়ারেন্ট অফিসার বশির আহমেদের নেতৃত্বে একদল সেনা সদস্য প্রয়াত ওই সেনা সদস্যের কফিন জাতীয় পতাকা দিয়ে ঢেকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন। এ সময় বিগলে করুণ সুর বাজানো হয়।

পরে সেনা সদস্যরা প্রয়াত সেনা সদস্যের কফিন নিজেরা কবরাস্থান পর্যন্ত বহন করে নিয়ে যান। পরে সেখানে দাফন শেষে তার কবরে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। একই সঙ্গে অন্তিম শয়নে সায়িত সেনা সদস্যকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে গার্ড অব অনার প্রদানসহ আকাশে তিনবার ফাঁকা গুলি বর্ষণ করা হয়। এ সময় প্রয়াত ওই সেনা সদস্যের পরিবারের সদস্যবর্গসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন। প্রয়াত সেনা সদস্য আক্তার হোসেন চান মৃত্যুকালে স্ত্রী, তিন ছেলে ও দুই মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। প্রয়াত সেনা সদস্য চান সিনিয়র সাংবাদিক ফজলুল কবীর সরজের বড় ভাই ও এটিএন বাংলা/এটিএন নিউজ ও দৈনিক যুগান্তরের শেরপুর প্রতিনিধি আব্দুর রহিম বাদল এবং মাছরাঙা টেলিভিশন, দৈনিক খবর ও ডেইলী ট্রিবিউন এর শেরপুর প্রতিনিধি আবুল হাশিমের মামা।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের