You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শ্রীবরদীতে সরগরম নির্বাচনী মাঠ ।। উত্তাপ ছড়াচ্ছে বিদ্রোহী প্রার্থীরা

তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হবে শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। প্রার্থীরা প্রতীক পেয়েই মাঠ দখলে ব্যাস্ত হয়ে পরেছেন। বদলে যাচ্ছে নির্বাচনী মাঠের দৃশ্যপট। শহর ও গ্রামের দর্শনীয় স্থানগুলোতে পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে যাচ্ছে। প্রার্থীর পক্ষে নানা ছন্দ আর গানের মধ্য দিয়ে চলছে মাইকিং। সকাল থেকে প্রার্থীরা যা্েচ্ছ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। অনুষ্ঠিত হচ্ছে উঠান বৈঠক। চায়ের স্টল গুলোতে প্রার্থীদের নিয়ে শুনা যাচ্ছে নানা গুঞ্জন। সময় যতই গড়াচ্ছে ততই সরগরম হচ্ছে নির্বাচনী মাঠ।

এতে চেয়ারম্যান পদে ৮ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এদের মধ্যে আওয়অমীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ৫ জন। নির্বাচনী মাঠে এখন আওয়ামীলীগের প্রতিপক্ষ বিদ্রোহীরা।

জেলা রিটানিং অফিস সূত্রে জানা গেছে, এদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আশরাফ হোসেন খোকার নৌকা প্রতীক। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও সাবেক কেকেরচর ইউপি চেয়ারম্যান এ.ডি.এম শহিদুল ইসলামের মোটর সাইকেল প্রতীক।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক জাহিদুল ইসলাম জুয়েলের আনারস প্রতীক। উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আব্দুল মতিনের দোয়াত কলম প্রতীক। আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল হামিদ সোহাগের ঘোড়া প্রতীক ও উপজেলা কৃষকলীগের সহ-সভাপতি পারভেজ সরোয়ার আলমের কাপ-পিচির প্রতীক। জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইকবাল আহসানের লাঙ্গল প্রতীক। স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট এরশাদুল আলম জজ এর হেলিকপ্টার প্রতীক।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আকন্দের উড়োজাহাজ প্রতীক। ব্যবসায়ী নেতা বিল্লাল হোসেনর গ্যাস সিলিন্ডার প্রতীক। পৌর বিএনপির সভাপতি আনিছুর রহমানের বই প্রতীক।, এমরুল কায়েসের তালা চাবি প্রতীক। ফরিদ আহমেদ নিলুর টিয়া পাখি প্রতীক। আওয়ামীলীগ নেতা মিজানুর রহমানের মাইক প্রতীক। আওয়ামী যুবলীগ নেতা খন্দকার মোহাম্মদ শামীম রানার পালকি প্রতীক।

গোলাম মোস্তুফার চশমা প্রতীক। ফারুক হোসেন শ্যামলের টিউবওয়েল প্রতীক। আওয়ামীলীগ নেতা ফজলুর রহমানের বাল্ব প্রতীক। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগমের ফুটবল প্রতীক। সাবেক উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লাবিনা আকতার লিমার হাঁস প্রতীক ও জাহানারা বেগম জলির কলসি প্রতীক।

প্রতীক পেয়েই প্রার্থীরা মোটর সাইকেল বহর নিয়ে শোডাউন করে জানান দেন উপজেলার শহর ও গ্রামাঞ্চলে। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম জুয়েলের (আনারস প্রতীক) সমর্থকদের উদ্যোগে পৌর শহরের উত্তর বাজার এলাকায় অনুষ্ঠিত হয় উঠান বৈঠক। এতে সভাপতিত্ব করেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ওবায়দুল হক খায়ের মুন্সী। সভায় বিপুল সংখ্যক লোকের সমাগম ঘটে। অপর দিকে একি সময়ে সাবেক কেকেরচর ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য চেয়ারম্যান প্রার্থী এডিএম শহীদুল ইসলামের সমর্থকেদের উদ্যোগে কুড়িকাহনীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয় উঠান বৈঠক। এতে সভাপতিত্ব করেন কুড়িকাহনীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব আব্দুস সালাম। সভায় বিপুল সংখ্যক লোকের সমাগম ঘটে। ইঞ্জিনিয়ার ইকবাল আহসানের সমর্থকদের উদ্যোগে ছনকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয় ওঠান বৈঠক। এতে সভাপতিত্ব করেন সাবেক শিক্ষক আলহাজ্ব আজিজুর রহমান। এছাড়াও অন্যান্য প্রার্থীরা খন্ড খন্ড মিছিল. ওঠান বৈঠক ও গণসংযোগ করেন। এতে জমে ওঠে ঝিমিয়ে থাকা নির্বাচনী মাঠ।

উপজেলা আওয়ামীলীগ সূত্রে জানা গেছে, দলের প্রতি আনুগত্যহীনতা ও দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য পদ থেকে অব্যহতি দেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এডিএম শহীদুল ইসলাম ও সহ সভাপতি আব্দুল মতিন, কেকেরচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল খালেক ও সাধারণ সম্পাদক দুলাল আল জাহানকে।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আশরাফ হোসেন খোকা ও সাধারণ সম্পাদক মোতাহারুল ইসলাম লিটনের গত ৮ মার্চ স্বাক্ষতির এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য পাওয়া যায়।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!