You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শ্রীবরদীতে বন্যহাতি কবলিত এলাকা পরিদর্শণ করলেন এ.কে.এম ফজলুল হক এমপি

শ্রীবরদীর সীমান্তবর্তী রানিশিমুল ইউনিয়নের বন্যহাতি কবলিত হালুহাটি গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থদের ঘরবাড়ি সোমবার পরিদর্শণ করেছেন শেরপুর-৩ আসনের এমপি এ.কে.এম ফজলুল হক চাঁন। পরিদর্শণ শেষে এমপি ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে প্রয়োজনীয় সাহায্য সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছেন। হাতি তাড়ানোর জন্য তিনি ব্যক্তিগতভাবে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন একটি জেনারেটর দেওয়ার কথা বলেন। অতিশীঘ্রই হাতি কবলিত এলাকায় বিদ্যুতায়ন এবং সোলার ফেন্সিংয়ের ব্যবস্থা করবেন বলে এলাকাবাসিদের জানিয়েছেন। এসময় তার সফর সঙ্গী হিসাবে ছিলেন ওসি রেজাউল হক, জেলা পরিষদ সদস্য আবু জাফর, কহিনুর বেগম, আ’লীগ নেতা মোহাম্মদ আলী লাল, ছালাহ উদ্দিন ছালেম, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল্লা ছালেহ, এম.এ মোনায়েম, উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক জাহিদুল ইসলাম জুয়েল, যুগ্ম-আহবায়ক লিয়াকত হোসেন লিটনসহ শতাধিক আ’লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ্ব।
উল্লেখ্য গত কয়েকদিনে ওই গ্রামে ভারতের গহীন অরণ্য থেকে নেমে আসে ৭০-৮০টি বন্য হাতি হালুয়াহাটি গ্রামে। গত ১০ আগষ্ট থেকে খাদ্যের সন্ধ্যানে ৭০-৮০টি হাতির একটি দল গ্রামবাসির সবজির ক্ষেত, খামার ও বসত বাড়িতে তান্ডব চালিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে হালুহাটি গ্রামের চুনু মন্ডলের ছেলে আ: হাই ওরফে নান্ডুু শেখ হাতির পায়ে পিষ্ট হয়ে নিহত হয়। নিহত নান্ডু শেখের স্ত্রী ও পুত্র বর্তমানে শেরপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাছাড়া, শুক্রবার গভীর রাতে আবারো ওই বন্য হাতির দল হালুহাটি গ্রামবাসির বাড়িঘরে হামলা করে ও বাড়ি-ঘর ভাংচুর করে এবং বাড়িতে থাকা ধান, চাউল ও অন্যান্য খাদ্য সামগ্রী খেয়ে সাবার করে। এসময় বন্য হাতি লোকজনের বাড়িতে থাকা রাসায়নিক সার ইউরিয়া খেয়ে একটি হাতির মৃত্যু হয়েছে এমন ধারনা স্থানীয়দের।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!