You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শ্রীবরদীতে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় চারজন আহত

শ্রীবরদীতে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় চারজন গুরুতর আহত হয়ে শ্রীবরদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ১১আগস্ট শুক্রবার বিকালে উপজেলার রানীশিমুল ইউনিয়নের আসান্দি পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলো আসান্দি পাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমানের মেয়ে আনোয়ারা বেগম (৫০) ও আনোয়ারা বেগমের ৩ ছেলে আতিক মিয়া (২৪), আশিষ (২০) এবং রাসেল (১৮)। এদের মধ্যে আতিক মিয়া ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও বাকিরা শ্রীবরদী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এনিয়ে আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে ৮ জনকে আসামী করে শ্রীবরদী থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। এ ঘটনায় নাজাত আলী নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকালে টেংগরপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আসান্দি পাড়া বনাম রানীশিমুল এই দুই দলের মধ্যে ফুটবল খেলা চলতেছিল। খেলা চলাকালীন সময়ে রানীশিমুল দলের খেলোয়ার লিমন ফাউল করলে রাসেল রেফারির নিকট ফাউলের আহবান জানায়। এতেকরে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি ও কথা কাটাকাটি হয়। এর এক পর্যায়ে রানীশিমুল গ্রামের সার্জন মেম্বারের ছেলে নাজাত ও লিমন রাসেলদের প্রাণনাশের হুমকি প্রদর্শণ করে। পরে বাড়ির দিকে আসার সময় নাজাত ও লিমনের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানার ওসি রেজাউল হকের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে এবং একজনকে আটক করা হয়েছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!