You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শ্রীবরদীতে দুদিনব্যাপি কমিউনিটি সামিটের সমাপনী অনুষ্ঠান


শ্রীবরদীতে ডা: ফাতেমা আশরাফিয়া মডেল একাডেমি প্রাঙ্গনে এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণের অংশগ্রহণে দু’দিনব্যাপি কমিউনিটি সামিট ২০১৭ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সামিটটি আয়োজন করে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ এর শ্রীবরদী এডিপি। দু’দিনব্যাপি কমিউনিটি সামিট অনুষ্ঠানের আজ সোমবার ছিল সমাপনী অনুষ্ঠান।
সমাপনী অনুষ্ঠানে সামিট এর অংশগ্রহণকারীদের মাঝে ইউএনও খালেদা নাছরিন শিশু কল্যানের ক্ষেত্রে এলাকার বিভিন্ন সমস্যাগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরেন। এই সকল সমস্যা সমাধানে, শিশুদের কল্যাণে জনগণকে সাথে নিয়ে সরকারের পাশাপাশি অবদান রাখার জন্য ওয়ার্ল্ড ভিশনের প্রশংসা করেন। একই সাথে আগামী দিনে শিশু কল্যাণে ভূমিকা রাখার জন্য পরিকল্পনার অংশ হিসাবে জনগণের এই সম্মেলনকে তিনি সাধুবাদ জানান। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, জনগণকে সাথে নিয়ে সরকারের পাশাপাশি ওয়ার্ল্ড ভিশন শ্রীবরদী এলাকার উন্নয়নে বিশেষতঃ শিশু কল্যাণে আরো অবদান রাখবে। আয়োজককে সামিট এর প্রতিবেদন ইএনও অফিসে শেয়ার করার জন্য আহ্বান জানান।
কমিউনিটি সামিটের উদ্দেশ্য ছিল বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার জনগনের অংশগ্রহণের মাধ্যমে শিশু কল্যানের জন্য প্রাপ্ত তথ্যের সারসংক্ষেপ সহভাগিতা করা, শিশু কল্যানের অগ্রাধিকারভিত্তিক ক্ষেত্র সম্পর্কে আলোচনা, সনাক্তকরণ এবং নির্ধাারণ করা, আগামী দিনে শিশু কল্যানের জন্য স্বপ্ন তৈরি করা ও সেই স্বপ্নের বাস্তবায়নের জন্য অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অংশিদারগণকে সনাক্ত করা। এই উদ্দেশ্যকে অর্জনের জন্য জনগণকে সাথে নিয়ে ওয়ার্ল্ড ভিশন স্থানীয় পর্যায়ে বিভিন্ন পর্যায়ের লোকজনের সাথে দলীয় আলোচনা করে এলাকার বিভিন্ন সমস্যা নিরুপন করা। এই সামিটের মাধ্যমে সেই সমস্যাগুলোকে প্রায়োরিটি করা হয় এবং মূল সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সেগুলো সমাধানের উপায় খুঁজে বের করা হয়।
অংশগ্রহণকারীগণ শ্রীবরদী এলাকার উন্নয়নের জন্য আগামী ৩ বছরের জন্য উন্নয়ন ইস্যু নির্ধারন করেন এবং ভিশন তৈরী করেন।
সামিট এর সমাপনী বক্তব্য রাখেন চন্দন জেড গমেজ, পরিচালক, এডভোকেসী ও সাপোর্ট সার্ভিসেস, ন্যাশনাল অফিস ও সাগর মারান্ডী, রিজিওনাল ফিল্ড ডিরেক্টর, ময়মনসিংহ রিজিওন। সামিট সঞ্চালনা করেন উজ্জ¦ল কান্তি সরকার, সিনিয়র ম্যানেজার – প্রোগ্রাম টেকনিক্যাল সার্পোট ও লিমা হান্না দারিং, এডিপি ম্যানেজার, নান্দাইল এডিপি।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন এডিপি ম্যানেজার অরবিন্দ এস গমেজ এবং সামিট এর উদ্দেশ্য তুলে ধরেন শেরপুর এডিপির সিনিয়র ম্যানেজার সজল বৈদ্য।
সামিট এ উপজেলার সরকারী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন পেশা ও শ্রেণীর প্রায় ৭৫ জন অংশগ্রহণকারী অংশগ্রহণ করেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!