You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শেরপুর সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার সীমান্তবর্তী নাকুগাঁও স্থল বন্দর প্রশাসনিক ভবনে প্রথমবারের মতো বিজিবি এবং বিএসএফ এর যৌথউদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৫আগস্ট শুক্রবার সকাল নয়টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যকার সম্পর্ক আরও সৌহার্দ্যপূর্ণ ও সুদৃঢ় করতে বাংলাদেশের স্থানীয় জনসাধারণের জন্য এ মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়।

বিজিবি ময়মনসিংহের সেক্টর ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ আতিকুর রহমান ও বিএসএফ এর তুরা হেডকোয়ার্টার্স এর সেক্টর ডিআইজি উদয় প্রতাপ সিং পাঠানিয়া যৌথভাবে ফিতা কেটে এ ক্যাম্পের শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, ২৭ বিজিবি’র অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আনিসুর রহমান, কর্নেল আব্দুর রহমান, সেক্টর মেডিকেল অফিসার আব্দুর রহিম, বিএসএফ এর কমান্ডিং অফিসার শ্রী পংকজ কুমার মিসরা, বিএসএফ’র ৭৫ ব্যাটালিয়ান কমান্ডার সুকুমারপাঠানায়ক, শ্রী বালা মুরগান, শ্রী জিতেন্দ্রনাথ গুপ্ত, ডা. হারপিটা মারাক, ডা. ফিডেরিক, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, খোরশেদ আলম খোকা, ইউনুছ আলী দেওয়ানসহ দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কর্মকর্তাগণ।

মেডিকেল ক্যাম্পে দুই দেশের ১০জন মেডিকেল অফিসার বাংলাদেশের স্থানীয় প্রায় এক হাজার পাচঁশত শিশু, নারী ও পুরুষ রোগীর বিনামূল্যে প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা, ব্যবস্থাপত্র, ওষুধ ও খাবার প্রদান করা হয়। বিকেলে উভয় দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কর্মকর্তা ও সদস্যদের মাঝে পারস্পরিক শুভেচ্ছা পুরস্কার প্রদান করা হয়। ক্যাম্পেইন শুরুর আগে বিএসএফ কর্মকর্তাদের সম্মানে গার্ড অব অনার প্রদান করে বিজিবির সদস্যরা।

চিকিৎসা নিতে আসা উপজেলার দাওধারা গ্রামের সাহেরা বেগম (৬৫) বলেন, বিনা চিকিৎসায় দীর্ঘ দিন ধইরা ভোগতাছিলাম। বিনা খরচে চিকিৎসা পাইয়া আমগরমত গরিব মানুষের বিরাট উপকার অইছে। তারা তিন চার পদের ওষুধ দিছে। প্রতি বছর এই রহম ব্যবস্থা করলে সীমান্তবাসীর খুব সুবিধা অইবো।

নাকুগাঁও গ্রামের শ্রমীক রইছ উদ্দিন (৭২) বলেন,বিজিবি আর বিএসএফ আমগরে বিনামূল্যে চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে। এতে আমগর গরিব ও অসহায় মানুষের বিরাট উপকার অইলো। প্রতি বছর এই রহম চিকিৎসার ব্যবস্থা করলে আমরা উপকৃত অইবাম।

তুরা হেডকোয়ার্টার্স এর সেক্টর ডিআইজি উদয় প্রতাপ সিং পাঠানিয়া বলেন, বিএসএফ ও বিজিবির যৌথ আয়োজনে দুই দেশে দুই দিনব্যাপী যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে, এই আয়োজনে বিএসএফ ও বিজিবির শুধু সর্ম্পক বৃদ্ধিই হয়নি এতে কওে দুই দেশের সীমান্তবর্তী দুই হাজার ১০০ জন মানুষ বিনামূল্যে চিকিৎসাপত্র ও ওষুধ পেয়েছেন। এতে কওে দুই দেশের সর্ম্পক আরো উন্নত হলো।

ময়মনসিংহের ভারপ্রাপ্ত সেক্টর কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, সীমান্তরক্ষী বাহিনি বিএসএফ ও বিজিবির মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য যে সব কর্মকান্ড হয়,যেমন গ্যাইম,স্পোর্টস,প্রতিযোগিতা,কালচারাল অনুষ্ঠান, এর মধ্যে কখনই এই ধরনের মানুষকে সরাসরি হেল্প করার মত কোন অনুষ্ঠান হয়নি,বিশেষ কওে সীমান্তবর্তী জনগন যারা আছেন সাধারনত তারা হাসপাতাল ও চিকিৎসকের স্বলপতার কারণে চিকিৎসা সেবা খুব একটা পায় না, সে হিসেবে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন করাতে জনগনের খুব উপকার হয়েছে।এই ধরণের কার্যক্রম বিজিবি ও বিএসএফ মধ্যে চলমান থাকবে,ভবিষ্যতে যাতে আমাদের দুই দেশের মধ্য চলমান অটুট সর্ম্পক, অটুট বন্ধুত্ব এটা যেন আরো সুদৃঢ় হয় এই প্রত্যাশা করেন সেক্টর কমান্ডার আতিক।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!