শেরপুর জেলা হাসপাতালের বাথরুম থেকে বৃদ্ধের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালের সার্জারী ওয়ার্ডের বাথরুম থেকে ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই বৃদ্ধের মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত বৃদ্ধ আব্দুল মালেক সদর উপজেলার লছমনপুর গ্রামের মৃত ময়েজ উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, আব্দুল মালেক গত ২৬ অক্টোবর শনিবার থেকে পাকস্থলির ব্যাথা নিয়ে সদর হাসপাতালের সার্জারী ওয়ার্ডের বি-১৩ নং বিছানায় ভর্তি হয়ে সার্জারী চিকিৎসক রবিউল ইসলামের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন। আজ রাত ১০টার দিকে আব্দুল মালেক ওই ওয়ার্ডের বাথরুমে যায়। কিন্তু অনেক সময় ধরে বাহিরে না এলে তার স্ত্রী তাকে ডাকতে থাকে। এসময় তার স্ত্রীর সন্দেহ হলে তিনি বাথরুমের দরজা খুলে মালেককে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ময়নাতদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শেরপুর সদর হাসপাতালের সার্জারী চিকিৎসক ডা. মো: রবিউল ইসলাম বলেন, আব্দুল মালেক পাকস্থলির ব্যাথা রোগে ভুগছিলেন। পরে আমার তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন।
শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) বিল্লাল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় ময়নাতদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।