শেরপুরে “সেরা ঘুষখোর “বলার অভিযোগে আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মানহানি মামলা


শেরপুরে এবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি এডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলুকে ‘ঘুষখোর‘ বলার অভিযোগে জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সদস্য ও কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সাবেক সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশার বিরুদ্ধে আদালতে মানহানির মামলা দায়ের হয়েছে। ৮ ফেব্রুয়ারী বুধবার দুপুরে স্পেশাল পিপি এডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু বাদী হয়ে শেরপুরের আমলী আদালতে ওই মামলাটি দায়ের করেন।

পরে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুর রহমান বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে ঘটনার বিষয়ে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ৪ ফেব্রুয়ারী বিকেলে জেলা শহরের রঘুনাথবাজার মোড়ে আওয়ামী লীগের এক প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেওয়ার এক পর্যায়ে কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশা নালিতাবাড়ীর এডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলুকে জেলা আওয়ামী লীগে স্থান না দেওয়াটা ভাল হয়েছে বলে উল্লেখ করে বলেছেন, ‘তিনি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপির দায়িত্বের নামে জেলায় সেরা ঘুষখোর হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। এজন্য স্পেশাল পিপির পদ থেকেও তাকে অপসারণ করা প্রয়োজন।’ তার ওই বক্তব্য জনসম্মুখেসহ বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশ-প্রচার হওয়ায় গোলাম কিবরিয়া বুলুর রাজনৈতিক, সামাজিক ও পেশাগত ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, এর আগে নালিতাবাড়ী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডার শাহাব উদ্দিনকে ‘আত্মসমর্পণকারী’ বলার অভিযোগে সাবেক কমান্ডার মোস্তাফিজুর রহমান মুকুলের বিরুদ্ধে আদালতে মানহানির মামলা দায়ের করা হয়।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।