You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শেরপুরে প্রথম আলোর ১৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদ্যাপিত

‘সাহসী ১৯ বছর’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শেরপুরে প্রথম আলোর ১৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদ্যাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আজ ৫ নভেম্বর রোববার প্রথম আলো বন্ধুসভা, শেরপুর জেলা শাখার উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। এসব কর্মসূচীর মধ্যে ছিল আনন্দ শোভাযাত্রা, পাঠক মেলা, আলোচনা সভা, কবিতা আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় শেরপুর জেলা শহরের গোপালবাড়ী এলাকায় অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী ইউনাইটেড স্কুল প্রাঙ্গণ থেকে এক আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্কুল প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।

পরে এখানে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন শেরপুর বন্ধুসভার সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম সাইফ। এতে বক্তব্য দেন শেরপুর সরকারি মহিলা কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. সুধাময় দাস, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন, শেরপুরের সভাপতি রাজিয়া সামাদ ডালিয়া, জেলা মহিলা পরিষদের সভানেত্রী জয়শ্রী দাস লক্ষ্মী, জেলা সেক্টর্স কমান্ডারস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ফকির আখতারুজ্জামান, শেরপুর সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক শিবশঙ্কর কারুয়া, দুর্নীতি দমন কমিশনের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) মোখলেছুর রহমান জীবন, নাগরিক সংগঠন জনউদ্যোগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সদর থানা বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক মো. শহিদুল ইসলাম, ইউনাইটেড স্কুলের অধ্যক্ষ খন্দকার আল কামাল চঞ্চল, শেরপুর বন্ধুসভার উপদেষ্টা মলয় চাকী ও সাধারণ সম্পাদক মাশুকুর রহমান মিশুক এবং প্রথম আলোর বৃত্তিপ্রাপ্ত অদম্য মেধাবী মোক্তারা পারভীন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, প্রথম আলো শুধুমাত্র একটি সংবাদপত্রই নয়-এটি একটি সামাজিক প্রতিষ্ঠান হিসেবেও সমাজে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছে। এই পত্রিকাটি তার অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের মাধ্যমে সরকারের শুধু সমালোচনাই করে না, শাসক শ্রেণির শোষণের কথাও তুলে ধরে। ফলে মাঝেমধ্যেই ক্ষমতাসীনদের প্রতাপ আর রোষাণলের মুখে পড়তে হয় পত্রিকাটিকে। কিন্তু বস্তুনিষ্ঠ, সাহসী আর নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার মাধ্যমে সকল বাধা পেরিয়ে প্রথম আলো আজ শুধু সর্বাধিক প্রচারিত সংবাদপত্রই নয়-এটি দেশের একটি শ্রেষ্ঠ সংবাদপত্র হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সমর্থ হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শে বিশ্বাসী এই পত্রিকাটি দেশের সাহসী তরুণদের সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশকে বিশ্ব বুকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী আধুনিক দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হবে বলে বক্তারা আশা ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রথম আলোর শেরপুর জেলা প্রতিনিধি দেবাশীষ সাহা রায় সবাইকে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানান। আলোচনাশেষে শেরপুর বন্ধুসভার সদস্য ও ইউনাইটেড স্কুলের শিক্ষার্থীরা কবিতা আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন। শেরপুর বন্ধুসভার সকল সদস্য অনুষ্ঠানটি সফল করতে সহযোগিতা করেন। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রায় তিন শ মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!