শেরপুরে পাট ও পাটজাত পণ্যের ব্যবহার বৃদ্ধির লক্ষ্যে উদ্বুদ্ধকরণ সভা

‘সোনালী আঁশের সোনার দেশ, মুজিব বর্ষের বাংলাদেশ’ এ প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে শেরপুরে পাট ও পাটজাত পণ্যের উৎপাদন-ব্যবহার বৃদ্ধি এবং পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০ প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন শীর্ষক উদ্বুদ্ধকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) জেলা প্রশাসনের তুলশীমালা কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার কাম সভাকক্ষে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নমিতা দে।

উদ্বুদ্ধকরণ সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা আইয়ুব আলী। মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন পাট উন্নয়ন অধিদপ্তরের জামালপুর অঞ্চলের মূখ্য পরিদর্শক মঞ্জুরুল হক বাদল। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পাট পরিদর্শক হুমায়ুন আহমেদ, জেলা চাউলকল মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শামীম হোসেন, সমাজসেবক আলহাজ্ব মোঃ এমদাদুল হক মাস্টার, পাটচাষী আনসার আলী প্রমুখ। সভায় স্থানীয় পাট উৎপাদনকারী কৃষক, পাট ব্যবসায়ী, পাটপণ্য ব্যবহারকারী, ধান-চাল ব্যবসায়ী, সাংবাদিক ও সুধীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

সভায় জানানো হয়, পাট শিল্পের সাথে নানাভাবে দেশের ৩ কোটি মানুষ জড়িত। কাজেই পাট ও পাট পণ্যের উৎপাদন, অভ্যন্তরিণ ব্যবহার বৃদ্ধির পাশাপাশি পণ্যে পাটজাত মোড়ক ব্যবহার আইনের যথাযথ প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন না হলে এ শিল্প হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়বে। তাই পাট শিল্পকে রক্ষায় পাটের উৎপাদন বাড়াতে মাঠ পর্যায়ে কৃষক সচেতনতা, পাট চাষীদের প্রশিক্ষণ ও প্রণোদনা প্রদান, অভ্যন্তরিণ ব্যবহার বাড়াতে নাগরিক সচেতনতা বাড়াতে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের তদারকির মাধ্যমে নানা কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন এবং পণ্যে পাটজাত মোড়ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে ব্যবসায়ী-আমদানী-রফতানিকারকদের দায়িত্বশীল হতে হবে।

অন্যদিকে, পরিবেশ রক্ষা ও পাটপণ্যের অভ্যন্তরিণ বাজার স¤প্রসারণের লক্ষ্যে পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০ এর যথাযথ প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন করতে হবে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।