You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শেরপুরে নব্য জিএমবির সদস্য আবুল কাশেম ওরফে আবু মোসাব গ্রেফতার

শেরপুরের নকলা উপজেলার চন্দ্রকোণা বাজার থেকে উদ্ধারকৃত বিস্ফোরক মামলার প্রধান আসামী ও নব্য জিএমবির সদস্য আবুল কাশেম ওরফে আবু মোসাবকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ।

আজ দুপুর পৌনে একটার দিকে টাঙ্গাইল জেলার এলেঙ্গা নামক স্থান থেকে শেরপুর জেলা পুলিশের একটি বিশেষ আভিযানিক দল তাকে গ্রেফতার করে ।

আজ রাত পৌনে ৯ টার দিকে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রেসব্রিফিং করে এ তথ্য নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার রফিকুল হাসান গণি ।

এসময় তিনি জানান, গত ৫ অক্টোবর নকলা উপজেলার চন্দ্রকোণা বাজার থেকে ১৮ কন্টেইনার ভর্তি বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক তৈরীর রাসায়নিক দ্রব্য উদ্ধার করার পর থেকে আবুল কাশেম পলাতক ছিল। আজ পুলিশ হেডকোয়ার্টাসের প্রযুক্তিগত সহায়তায় চাপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকা আসার পথে তাকে এলেঙ্গা নামক এলাকায় গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে আমাদের জানিয়েছে যে, ২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে দুই জঙ্গীর মাধ্যমে পরিচয় হয় । তাদের সাথে ঘনিষ্ঠতার এক পর্যায়ে ফেসবুক ছেড়ে বিশেষভাবে তৈরী এনকোডেড মোবাইল এপসের মাধ্যমে যোগাযোগ অব্যাহত থাকে । তার এক পর্যায়ে তাকে বিস্ফোরক দ্রব্য রাখার জন্য একটি ঘর ভাড়া নিতে বলে ।

পরে সে চন্দ্রকোনা বাজারে মাসিক ৬০০ টাকায় একটি ঘর ভাড়া নেন এবং সেখানে ওই বিস্কোরক তৈরীর রাসায়নিক তরল দ্রব্য গুলো রাখা হয়। যা দিয়ে বড় কোন জনসমাগমে বিস্ফোরণ ঘটানোর পরিকল্পনা করা হয়েছিল ।

প্রেসবিফ্রিং কালে শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলাম, শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খান আব্দুল হালিম সিদ্দীকি, জেলার গোয়েন্দা শাখার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার সহ জেলার প্রিন্ট ও ইলেক্টনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিল।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!