শেরপুরে নদী-নালা খাল-বিল রক্ষায় মানববন্ধন

শেরপুরের নকলার সুতিখালি ও সুবর্ণখালি নদীর অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ এবং খনন কাজ করাসহ বিভিন্ন নদী-নালা, খাল-বিল, উন্মুক্ত জলাশয়ের অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করে খনন, সংস্কার ও সংরক্ষণের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। নাগরিক সংগঠন জনউদ্যোগ শেরপুর কমিটির আয়োজনে বুধবার (১৩ নভেম্বর) দুপুরে শহরের কালির বাজার এলাকায় ডিসি গেইটের সামনে এ পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

পরে একই দাবীতে জেলা প্রশাসকের নিকট একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব স্মারকলিপি গ্রহণ করে বিষয়গুলো খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন। এসময় তিনি বলেন, ইতোমধ্যে জেলার বেশ কয়েকটি নদী এবং খাল খনন এবং সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কোন নদী কিংবা খাল-বিল কারো অবৈধ দখলে থাকলে সেগুলো উদ্ধার ও সংরক্ষনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এছাড়া তিনি শব্দ দূষণ, বায়ু দুষণ এবং পরিবেশ দূষনের বিরুদ্ধেও সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।

বেলা ১১টা থেকে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে জনউদ্যোগ আহ্বায়ক শিক্ষক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মাঝে শেরপুর চেম্বারের সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রকাশ দত্ত, প্রেসক্লাব সভাপতি শরিফুর রহমান, জেলা জাসদ সভাপতি মনিরুল ইসলাম লিটন, জেলা আ’লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শামীম হোসেন, জেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি রাজিয়া সামাদ ডালিয়া, জেলা মহিলা পরিষদ সাংগঠনিক সম্পাদক আইরীন পারভীন, সদর উপজেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি সোলাইমান আহমেদ, জেলা ঘাতক দালাল নিমূল কমিটির সাধারণ সম্পাদক আসম সোহেল নয়ন, হিজড়া কল্যাণ সমিতির সভাপতি নিশি সরকার, জেলা খেলাঘর সাধারণ সম্পদেক নন্দ সাহা, শিশু সংগঠন এনসিটিএফ সমন্বয়ক রজত সাহা অন্তু, আইইডি শেরপুর অফিসের প্রোগ্রাম অফিসার এসএম ইমতিয়াজ চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তরা বলেন, জেলার বেশীর ভাগ খাল-বিল, নদী-নালা, উন্মুক্ত জলাশয় অবৈধ দখলদারদের হাতে চলে গেছে। দখলদারদের দ্রুত উচ্ছেদ করে প্রকৃতিক জলাশয়গুলো সংস্কার ও সংরক্ষণ করে পরিবেশের মারাত্বক বিপর্যয়ের হাত থেকে জেলাবাসীকে রক্ষা করতে হতে। মানববন্ধনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংবাদিক, নারীনেত্রী, মানবাধিকারকর্মী, রাজনীতিক ও ভুক্তভোগী লোকজন অংশগ্রহণ করেন।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।