You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

শেরপুরে চাদাঁবাজ সংগঠন আখ্যায়িত করার প্রতিবাদে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন

শেরপুরে সংবাদ সম্মেলন করে চাদাঁবাজ সংগঠন আখ্যায়িত করার প্রতিবাদে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছে বাংলাদেশ অটোরিক্সা শ্রমিক লীগ নামে একটি শ্রমিক সংগঠন । আজ রবিবার দুপুরে শহরের পৌর নিউমার্কেটের অস্থায়ী কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন করে বাংলাদেশ অটোরিক্সা শ্রমিকলীগ শেরপুর জেলা শাখা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বাংলাদেশ অটোর্ক্সিা শ্রমিকলীগ শেরপুর জেলা শাখার সভাপতি রুকুনুজ্জামান আলমগীর জানান, আমাদের সংগঠন শ্রম পরিদপ্তর থেকে নিবন্ধিত । বাংলাদেশ অটোরিক্সা শ্রমিকলীগ সংগঠনের গঠনতন্ত্র মোতাবেক সকল কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে । শ্রমিক কল্যানে নিজেদের নিয়েজিত রাখার পাশাপাশি পরিবহন চলাচলে শতভাগ সুষ্ঠ ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে তাদের সংগঠন তথা বিভিন্ন উপকমিটি কাজ করছে।

শেরপুরে একমাত্র আমাদের সংগঠন মাত্র ১০ টাকা রশিদ প্রদান সাপেক্ষে চাদাঁ আদায় করে সারা জেলায় নিশ্চিন্তে চলাচলের নিশ্চিয়তা দিচ্ছে অথচ শেরপুর অটোরিক্সা-অটো টেম্পু চালক শ্রমিক ইউনিয়ন নামের একটি বির্তকিত সংগঠন বছরের পর বছর কোন ধরণের নির্বাচন না করে,নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে নিয়ম বহির্ভূত ভাবে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা চাদাঁ উত্তোলন করছে আর তাতে সহযোগিতা করছে ঘাপটি মেরে থাকা একশ্রেনীর ক্ষমতাশালী ব্যক্তিরা । যার আয়-ব্যয়ের বাস্তবসম্মত কোন হিসাব ওই সংগঠনের নেতৃবৃন্দ দিতে পারবেন না। গত ১৯ আগষ্ট সংবাদ সম্মেলন করে আমাদের নিয়মতান্ত্রিক সংগঠনকে যেভাবে চাদাঁবাজ বলা হয়েছে আমরা তার ত্রীব প্রতিবাদ করি।

আমরা খুব দ্রুতই কোথা থেকে, কিভাবে কোটি কোটি টাকা চাদাঁ তুলা হচ্ছে তার বর্ণনা দিয়ে জেলা প্রশাসনকে অবহিত করবো। যদি প্রশাসন এর ব্যবস্থা গ্রহন না করে । যদি এর সুরাহা না হয় তবে আমরা কঠোর কর্মসূচি দিয়ে শেরপুরকে অচল করে দিব।

তবে সংবাদ সম্মেলনে করা অটোরিকশা শ্রমিক লীগের পাল্টা অভিযোগ অস্বীকার করে চাদাঁবাজির অভিযোগ সর্ম্পকে শেরপুর অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো: আলাল উদ্দিন মোবাইল ফোনে জানান, সরকারি নিয়মনীতি মেনে ও সংগঠনের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তাঁরা তাঁদের সংগঠনের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন। কিন্তু অটোরিকশা শ্রমিক লীগ একটি রাজনৈতিক দলের অঙ্গ সংগঠন হলেও তাঁরা চালক-শ্রমিকদের নিকট থেকে চাঁদা আদায় করছেন।

তিনি বলেন, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী নির্ধারিত সময়েই নির্বাচনের মাধ্যমে তাঁদের সংগঠনের কর্মকর্তা নির্বাচিত করা হচ্ছে। এ ছাড়া সংগঠনের আয়-ব্যয়ের পূর্ণাঙ্গ হিসাব তাঁদের কাছে আছে। অটোরিকশা শ্রমিক লীগের সকল অভিযোগ মিথ্যা বলে তিনি দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক মো. আরিফ রেজা, জাতীয় শ্রমিক লীগ, শেরপুর জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক বজলুর রশীদ নাহাজ, অটোরিকশা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোতালেব রহমান, সহসভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক ও যুগ্ম- সাধারণ সম্পাদক সজীবুল আলম বক্তব্য দেন।

 

উল্লেখ্য গত ১৯ আগষ্ট শেরপুর অটোরিক্সা-অটো টেম্পু চালক শ্রমিক ইউনিয়ন শহরের নতুন বাস টার্মিনালে তাদের নিজস্ব কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বাংলাদেশ অটোরিকশা ও টেম্পো শ্রমিক লীগ জেলা কমিটির বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ আনে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!