শেরপুরে এক কলেজ ছাত্রীসহ দুই জনের মরদেহ উদ্ধার

যক্ষা রোগের ভয়ে শেরপুর সরকারী কলেজের সম্মান শ্রেনীর শেষবর্ষের ছাত্রী চাঁদনী আক্তার নামে এক ছাত্রী ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে।

চাদনী শেরপুর সদর উপজেলার ধলা কান্দা গ্রামের মৃত আব্দুল হামিদের একমাত্র কন্যা । চাদনী আক্তার শেরপুর জেলা শহরের গৌরীপুর মহল্লার স্বপন কুমারের বাসায় ভাড়া থাকতো এবং শেরপুর সরকারি কলেজে লেখা পড়া করতো।

গতকাল রাতে সে ভাড়া বাসায় গ্রীলে ফাসিতে ঝুলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এসময় বাসার লোকজন তাকে উদ্ধার করে শেরপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

চাদনী পরিবারের লোকজন দাবী করেছে, কিছুদিন আগে সে যক্ষা রোগে আক্রান্ত হয়। তার মুখ দিয়ে রক্ত পড়তে দেখে ভয়ে সে আত্মহত্যা করে। মৃত্যুর আগে চিরকুটে এমনটাই সে উল্লেখ করেছে।

শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান এব্যাপারে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে ।

এদিকে জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার চকপাড়া মহল্লা থেকে ছামিদুল ইসলাম ওরফে সানাউল্লাহ (৪৮) নামে চার সন্তানের জনকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ । ২৫ আগস্ট শনিবার মধ্যরাতে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ও রোববার ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর মর্গে পাঠিয়েছে।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম ফসিহুর রহমান জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখনও কোন মামলা হয়নি। ময়নাতদন্ত শেষে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের