শেরপুরের তিন উপজেলায় ভোটযুদ্ধে ভাইস চেয়ারম্যান হলেন যারা

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে শেরপুরের ৩টি উপজেলায় পুরুষ ও মহিলা মিলে ৬ ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিতদের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। ২৪ মার্চ রবিবার মধ্যরাতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্থাপিত নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা কেন্দ্র থেকে ওই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। তবে ঝিনাইগাতী উপজেলায় পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদের ফলাফল বিপত্তির কারণে সোমবার ঘোষণা করা হয়েছে।

বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, শ্রীবরদী উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে উড়োজাহাজ প্রতীকে ১৯ হাজার ৫৯৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আকন্দ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফরিদ আহমেদ নিলু টিয়া পাখি প্রতীকে পেয়েছেন ১১ হাজার ২৬৭ ভোট। এছাড়া গোলাম মোস্তুফা চশমা প্রতীকে ১০ হাজার ৭২ ভোট, ফারুক হোসেন শ্যামল টিউবওয়েল প্রতীকে ৮ হাজার ৭৪৫ ভোট, মিজানুর রহমান ৭ হাজার ৬২৪ ভোট, এমরুল কায়েস তালা-চাবি প্রতীকে ৭ হাজার ৫১৭ ভোট, বিল্লাল হোসেন গ্যাস সিলিন্ডার প্রতীকে ৬ হাজার ৬৬০ ভোট, আনিছুর রহমান বই প্রতীকে ৬ হাজার ৪৮৫ ভোট, খন্দকার মোহাম্মদ শামীম রানা পালকি প্রতীকে ২ হাজার ৫০৭ ভোট ও ফজলুর রহমান বাল্ব প্রতীকে ২ হাজার ৬১৬ ভোট পেয়েছেন।

এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জাহানারা বেগম কলস প্রতীকে ৪৯ হাজার ৫১৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ২৮ হাজার ৮৩৪ ভোট। অপর প্রার্থী সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লাবিনা আক্তার লিমা হাঁস প্রতীকে পেয়েছেন ১২ হাজার ৫শ ৯২ ভোট।

ঝিনাইগাতী উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লাইলী বেগম কলস প্রতীকে ২৫ হাজার ৬১৯ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জেসমিন আক্তার ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ১৭ হাজার ১১৭ ভোট। এ উপজেলায় পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ প্রতিদ্বন্দ্বীর ভোট সংখ্যা নিয়ে বিপত্তি ও গোলযোগ দেখা দিলে রবিবার রাতে তা স্থগিত রাখা হয়। তবে সোমবার দুপুরে তা ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, মোফাজ্জাল হোসেন চৌধুরী টিউবওয়েল প্রতীকে ১৫ হাজার ৩৮৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রকিবুল ইসলাম রুকন চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ১৫ হাজার ১৬৫ ভোট।

নালিতাবাড়ী উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে যুবলীগ নেতা আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম চশমা প্রতীকে ৩৫ হাজার ৫৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা যুবলীগের সদস্য শেখ ফরিদ পেয়েছেন ১৮ হাজার ২০৪ ভোট। এছাড়া শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রিন্সিপাল মুনীরুজ্জামান উড়োজাহাজ প্রতীকে ১২ হাজার ৭৫২ ভোট, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা মিঠু মাইক প্রতীকে ১২ হাজার ৩৭৩ ভোট, আসাদুজ্জামান সোহেল তালা প্রতীকে ৭ হাজার ৫৬৮ ভোট ও আব্দুল কাইয়ুম টিয়া পাখি প্রতীকে ৪ হাজার ৯৮১ ভোট পেয়েছেন। এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আশুরা বেগম কলসি প্রতীকে ৫১ হাজার ৮৬৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মালা রানী সাহা ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ২২ হাজার ৩৫৮ ভোট। এছাড়া ফাতেমা বেগম হাঁস প্রতীকে পেয়েছেন ১৬ হাজার ৫২৯ ভোট।

 

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের