শেরপুরের গারো পাহাড়ে বাণিজ্যিকভাবে চা চাষ শুরু

শেরপুরের ঝিনাইগাতীর সীমান্তবর্তী গারো পাহাড়ে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর সংশ্লিষ্টতার মাধ্যমে বাণিজ্যিকভাবে চা চাষ শুরু হয়েছে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গারো হিলস টি কোম্পানীর উদ্যোগে গারো পাহাড়ের ২৭ জন ক্ষুদ্র চাষীর জমিতে ২৭ হাজার চা চারা রোপণ করে ২৭ টি প্রদর্শনী বাগান করার মধ্যদিয়ে বানিজ্যিকভাবে এই চা চাষের কার্যক্রম শুরু হলো।

রবিবার বিকেল ৫ টায় উপজেলার গান্ধীগাঁও এলাকার বনরাণী ফরেস্ট রিসোর্টে এ চা চাষ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন ঝিনাইগাতী উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম বাদশা।

গারো হিলস টি কোম্পানীর চেয়ারম্যান মো. আমজাদ হোসাইনের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. রাশেদুল হাসান, জেলা পরিষদ সদস্য মো. আবু তাহের, বন বিভাগের রাংটিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন, শেরপুর চেম্বার অব কর্মাস সভাপতি মো. মাসুদ মিয়া, বিটিআরআই’র সাবেক সহকারী অধ্যক্ষ এম এ খালেক, পঞ্চগড়ের সবুজ এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের ম্যানেজিং পার্টনার শাহিরুল ইসলাম চৌধুরী, ঝিনাইগাতী প্রেসক্লাবের সভাপতি এম খলিলুর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা বলেন, ঝিনাইগাতীর গারো পাহাড়ের যে ২৭ জন ক্ষুদ্র চাষীর মাধ্যমে ২৭ টি প্রদর্শনীতে যে চা চাষ কার্যক্রম শুরু হলো তা গারো পাহারের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে পড়বে এবং এর মাধ্যমে যে চা উৎপাদন হবে তা শেরপুর জেলা তথা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের