You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

মুহসীন আলী মাস্টার (১৯৩৮-২০১৫)

জন্ম ১৯৩৮ সালের ২৬ নভেবর শেরপুর সদর উপজেলার বাজিতখিলা ইউনিয়নের মীর্জাপুর গ্রামে। বাবা মরহুম ইউনুছ আলী, মা মরহুমা হাওয়াতুন নেছা। বাবা মা’র তিন সন্তানের মধ্যে তিনি ছিলেন প্রথম।

স্ত্রী মহসীনা বেগম গৃহীনি। ছয় সন্তান মধ্যে বড় ছেলে মুসফিকুজ্জামান সেলিম নকলা সরকারী হাজী জাল মামুদ কলেজের প্রাণী বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক । মেঝ ছেলে মামুন রাশেদ আমেরিকা প্রবাসী। সেঝ ছেলে মুনতাসির নোমান বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। ছোট ছেলে আনোয়ার জাহিদ বিপ্লব প্রিন্টিং ব্যবসায়ী। দুই মেয়ের মধ্যে মাসরুফা ফেরদৌস পেশায় কলেজ শিক্ষক আর মাসরুহা ফেরদৌস গৃহীনি।
জামালপুর আশেক মাহমুদ কলেজ থেকে বিএ ও ময়মনসিংহ থেকে বিএ, বিএড ডিগ্রী অর্জন শেষে তিনি শিক্ষকতা পেশায় জড়িয়ে পড়েন। তিনি শতবছরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শেরপুর সরকারী ভিক্টোরিয়া একাডেমির প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালনও করেন।
মুহসীন আলী ছিলেন একজন ভাষাসংগ্রামী ও মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক।

মুক্তিযুদ্ধে শেরপুরে সাত সদস্যের সর্বদলীয় সংগ্রাম পরিষদের তিনি ছিলেন অন্যতম সদস্য । মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে মুজিবনগর সরকারের কর্মচারী হিসাবে তিনি ভারতের ডালু ক্যাম্পের ইনচার্জ ছিলেন ।

দীর্ঘদিন তিনি শেরপুর সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন । বঙ্গবন্ধু ঘোষিত শেরপুরকে ৬১তম জেলা হিসাবে তৎকালীন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।
শিক্ষকতা ও রাজনীতির পাশাপাশি তিনি শেরপুরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় ও সামাজিক সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি ২০১৫ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর ইন্তেকাল করেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!