মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়লেন যে হেভিওয়েটরা

মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়েছেন দশম জাতীয় সংসদের অধিকাংশ হেভিওয়েটরা।এ বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক মহলসহ সাধারণ মানুষের মধ্যে শুরু হয়েছে জোর আলোচনা। অনেকে বিষয়টিকে গত মন্ত্রিসভায় সুনামির আঘাত হিসেবে অবিহিত করেছেন।

কেননা মন্ত্রী থেকে বাদ পরার তালিকা রয়েছেন- আমির হোসেন আমু (শিল্প মন্ত্রণালয়), তোফায়েল আহমেদ (বাণিজ্য মন্ত্রণালয়), বেগম মতিয়া চৌধুরী (কৃষি মন্ত্রণালয়), মোহাম্মদ নাসিম (স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়), ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন (স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়), এ. কে. এম শাহজাহান কামাল (বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়), মোশাররফ হোসেন (গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়), হাসানুল হক ইনু (তথ্য মন্ত্রণালয়), আনোয়ার হোসেন মঞ্জু (পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়), নুরুল ইসলাম নাহিদ (শিক্ষা মন্ত্রণালয়), শাহজাহান খান (নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়), মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া (দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়), আবুল হাসান মাহমুদ আলী (পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়), মোস্তাফিজুর রহমান (প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়), আসাদুজ্জামান নূর (সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়), শামসুর রহমান শরীফ (ভূমি মন্ত্রণালয়), মো. কামরুল ইসলাম (খাদ্য মন্ত্রণালয়), রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক প্রমুখ।

প্রতিমন্ত্রীদের মধ্যে বাদ পড়েছেন- ইসমত আরা সাদেক (জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়), নারায়ন চন্দ্র (মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়), মির্জা আজম (বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়), মো. নজরুল ইসলাম (পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়), বেগম মেহের আফরোজ চুমকি (মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়), শ্রী বীরেন শিকদার (যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়)।

বিগত মন্ত্রিসভায় উপমন্ত্রী ছিলেন মাত্র দু’জন। এরা উভয়েই বাদ পড়েছেন। তারা হলেন- আরিফ খান জয় (যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়) এবং আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জেকব (পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়)

সূত্র: দৈনিক জাগরণ।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের