You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

মতিয়া চৌধুরীর আসনে নির্বাচন করতে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা

শেরপুর-২ (নকলা ও নালিতাবাড়ী) আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে কৃষিমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ মতিয়া চৌধুরীর আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ পদত্যাগ করেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক একেএম মুখলেছুর রহমান রিপন ।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগের পর বুধবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক (ডিসি) আনার কলি মাহবুবের কাছে মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

একেএম মুখলেছুর রহমান রিপন বলেন, আমি মঙ্গলবার বিএনপি থেকে মনোনয়ন পত্রের চিঠি হাতে পাই। তাই নিয়ম অনুযায়ী আমি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেছি। মনোনয়ন পত্রের চিঠি হাতে পাওয়ার পরই আমার পদত্যাগপত্র স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ে জমা দেই।

২০১৪ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীকে পরাজিত করে একেএম মুখলেছুর রহমান রিপন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

উপজেলা বিএনপির দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ নভেম্বর দলটির গুলশান কার্যালয় থেকে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত একই আসন থেকে তিন জন কে মনোনয়নের চিঠি দেন। এরা হলেন- কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য প্রকৌশলী ফাহিম চৌধুরী, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মো. হায়দার আলী, জেলা বিএনপির আহবায়ক একেএম মুখলেছুর রহমান রিপন।

এ আসন কৃষিমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ বেগম মতিয়া চৌধুরীর আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০৮ ও ২০১৪ সালে এমপি নির্বাচিত হন। এবারও তিনি আওয়ামীলীগ থেকে নির্বাচন করার জন্য মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, শেরপুর-২ (নকলা ও নালিতাবাড়ী) আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৪৯ হাজার ১৩৬ জন। নারী ১ লাখ ৭৭ হাজার ২৫১ ও পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৭১ হাজার ৮৮৫ জন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!