ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেয়ায় কেন্দ্র সচিবকে অব্যাহতি


শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ভুল প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়ায় তারাগঞ্জ ফাজিল মাদ্রাসার কেন্দ্র সচিব এফএম মোশারফ হোসেন আকন্দকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গত রবিবার তাকে এ অব্যাহতি প্রদান করেন। পরে উপজেলার গোজাকুড়া দাখিল মাদ্রসার সুপারিন্টেডেন্ট আলহাজ্ব মাওলানা মো: জামাল উদ্দিনকে সোমবার (৪ ফেব্রুয়ারি) ওই কেন্দ্রের সচিব হিসেবে নিয়োগ প্রদান করেন। তিনি আজ মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) নিজ দায়িত্ব পালন করেছেন।

চলমান এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রথমদিন গত শনিবার দাখিল পরীক্ষার্থীরা কোরআন মজিদ বিষয়ে পরীক্ষা দেয়। এমসিকিউ পরীক্ষার আধা ঘণ্টা পর শুরু হয় সিকিউ (সৃজনশীল)। এসময় আধা ঘণ্টা অতিবাহিত হওয়ার পর পরীক্ষার্থীরা টের পান তারা ২০১৯ সালের প্রশ্নপত্রের পরিবর্তে ২০১৮ সালের প্রশ্নপত্র দিয়ে পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। টের পাওয়ার পর আধা ঘণ্টা সময় বাড়িয়ে দিয়ে ২০১৯ সালের প্রশ্নপত্র সরবারাহ করে বেলা দেড়টায় পরীক্ষা শেষ হয়। পরদিন রবিবার বিভিন্ন গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত বিষয়ে খবর প্রকাশিত হলে ওই দিনই কেন্দ্র সচিব এফএম মোশারফ হোসেন আকন্দকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

নতুন কেন্দ্র সচিব হিসেবে নিয়োগ পাওয়া আলহাজ্ব মাওলানা মো: জামাল উদ্দিন বলেন, পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব আমি যথাযথ ভাবে পালন করার চেষ্টা করব।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুর রহমান বলেন, শনিবার ওই কেন্দ্র সচিব এফএম মোশারফ হোসেন আকন্দ কোরআন মজিদ পরীক্ষায় ভুল ক্রমে ২০১৯ সালের পরিবর্তে ২০১৮ সালের প্রশ্নপত্র সরবরাহ করায় সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তার স্থলে আলহাজ্ব মাওলানা মো: জামাল উদ্দিনকে কেন্দ্র সচিব হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের