‘বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি মামুলি প্রভাব ফেলবে’

প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদবিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেছেন, বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধিতে জনগণের জীবনযাত্রায় মামুলি প্রভাব পড়বে। শুক্রবার সকালে বিদ্যুৎ ভবনে ‘লিডারশিপ ওয়ার্কশপের’ উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। সাংবাদিকরা তাকে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধিতে জনগণের উপর কোনো প্রভাব পড়বে কি না প্রশ্ন করলে জবাবে তিনি বলেন, ইনশাআল্লাহ কোনো প্রভাব পড়বে না। মামুলি প্রভাব ফেলবে বলে আশা করছি। খুবই অল্প। এটা নিয়ে রাজনীতি করার কিছু নেই। রেগুলেটরি কমিশন সব কিছু বিবেচনায় নিয়েই মূল্য নির্ধারণ করেছেন। এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারবো না। তবে আমাদের তথ্য অনুযায়ী, সাম্প্রতিক মূল্যবৃদ্ধির পরও বিদ্যুতে ৪ হাজার কোটি টাকা ঘাটতি থাকে। তবে প্রধানমন্ত্রী টাকাকে ঘাটতি না বলে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের বিনিয়োগ বলে উল্লেখ করেন। এখন দেশের ৮৪ ভাগ লোক বিদ্যুৎ পাচ্ছে। আমরা চাই বাংলাদেশের সবাই বিদ্যুৎ পাক। এজন্য বিদ্যুতের সম্প্রসারণ লাগবে।

বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ব্যবহৃত তেলের মূল্য কমিয়ে বিদ্যুতের দাম স্থিতিশীল রাখা যেত কি না প্রশ্ন করলে তিনি জানান, বিদ্যুৎ বলেন আর যাই বলেন, এক জায়গায় ভর্তুকি কমালে আরেক জায়গায় বাড়ে। বিদ্যুৎ, খনিজ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়সহ এসব সেক্টরের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব দফতরের প্রধানরা ওয়ার্কশপে অংশ নিয়েছেন। দুই দিনব্যাপী ওয়ার্কশপ শেষ হবে শনিবার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেন, একজন লিডারের মনোভাব থাকবে যে সে সব জানে। তার জানা থাকতে হবে তার টিমের সবাই তাকে বিশ্বাস করে কি না। তার কথার কোনো প্রভাব তার কর্মীদের মধ্যে পড়ে কি না। লিডার সবসময় সমস্যার সমাধান করবে, কর্মীদের ফিডব্যাক দেবে। আশা করছি আপনারা এসব কথা মনে রেখে দায়িত্বপালন করবেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের