বাংলাদেশ ২০২০ সালে ফাইভ-জিতে পা দেবে

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, নতুন সভ্যতার ভিত্তি হিসেবে কাজ করবে ফাইভ জি। এটি সম্প্রসারণে এরইমধ্যে রোডম্যাপ তৈরি করা হয়েছে। ২০২০ সালেই ফাইভ-জি জগতে পা দেবে বাংলাদেশ।

সোমবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে টেলিযোগাযোগ অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে এক বৈঠকে তিনি এ কথা জানান। ডিজিটাল ও সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে সাত সদস্যের একটি আমেরিকান বিশেষজ্ঞ দলের সঙ্গে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

মন্ত্রী বলেন, ফাইভ-জি শুধু কথা বলা বা ব্রাউজ করা প্রযুক্তি হিসেবে দেখা হয় না, এটিকে ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের মহাসড়ক বলা হয়। ফাইভ-জি শিল্প, বাণিজ্য, কৃষি, শিক্ষা এবং চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নয়নে অভাবনীয় ভূমিকা পালন করবে।

সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে এ ধরনের আলোচনা এই প্রথম উল্লেখ করে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, ডিজিটালাইজেশন প্রক্রিয়ায় নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

বৈঠকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব নুর-উর- রহমান, ডাক অধিদফতরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ মোহসিনুল আলম, ইউ এস স্টেট ডিপার্টমেন্টের সাইবার বিশেষজ্ঞ জন পিলেটিস, লিসা জি, এবং ড্যানিয়েল লারসনসহ বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা  ও আমেরিকান দূতাবাসের কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকে ফাইভ-জি এর রোডম্যাপ উপস্থাপন করেন বিটিআসি-র মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো শহিদুল আলম। এছাড়া সাইবার নিরাপত্তার বিষয় উপস্থাপনা করেন সাইবার থ্রেট ডিটেকশন অ্যান্ড রেজপোন্জ প্রকল্পের উপ প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মো গোলাম সারোয়ার।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।