বনানী অগ্নিকান্ডে স্পাইডারম্যান জসিম শেরপুরের গর্ব

ঢাকার বনানীর এফআর টাওয়ারের অগ্নিকান্ডে নিজের জীবন বাঁজি রেখে স্পাইডারম্যানের মতো ঝাঁপিয়ে মানুষের জীবন বাঁচাতে মানবতার অনন্য সাক্ষর রাখা সেই জসিম (৩১) শেরপুরের গর্ব। তাই তাকে নিজ জেলায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। সোমবার (১৫ এপ্রিল) দুপুরে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করে তার হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা ও উপহার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব।

জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষ রজনীগন্ধায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) এটিএম জিয়াউল ইসলাম।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (উপ-সচিব) সাইয়েদ এজেড মোরশেদ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জন কেনেডি জাম্বিল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফিরোজ আল মামুন, নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান, নকলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুর রহমান, ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবেল মাহমুদ, শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সেজুতি ধর, শেরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম  আধার, এনডিসি মেজবাউল আলম ভূইয়া, সহকারী কমিশনার (আইসিটি) মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী কমিশনার অহনা জিন্নাত প্রমুখ। অনুষ্ঠানে এফআর টাওয়ারে অগ্নিকান্ডের সময়কালে জসিমের সহায়তায় মৃত্যুর কোল থেকে এক তরুণীকে উদ্ধারের ভাইরাল ভিডিওটি দেখানো হয়।

জসিম সদর উপজেলার বলাইয়েচর ইউনিয়নের দুসরা ছনকান্দা গ্রামের মৃত ওমর আলী ও মাজেদা বেগমের ৩ পুত্র। এক কন্যার মধ্যে জসিম দ্বিতীয়। জসিম বলেন, সেদিন নিজের তরফ থেকে আরও মানুষকে বাঁচাতে পারলে তার আনন্দ হতো। কিন্তু অনেক মানুষ মারা যাওয়ায় সেই দিনটি তার কাছে একটি শোকের দিন। সাহায্য-সহযোগিতার চেয়ে মানুষের দোয়া ও ভালোবাসাই বড় প্রাপ্তি। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত মানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারি।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের