প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী শেরপুরের সন্তান সাংবাদিক আবদুল মজিদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জোট নিরপেক্ষ আন্দোলন-ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিতে আজ বৃহস্পতিবার আজারবাইজানের রাজধানী বাকুর উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর ৫৮জন সফরসঙ্গীর মধ্যে রয়েছেন শেরপুরের কৃতি সন্তান, বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্মমহাসচিব আবদুল মজিদ।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক আবদুল মজিদ বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সম্মানীত সদস্য মনোনীত হয়েছেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য। তার গ্রামের বাড়ি শেরপুর জেলার সদর উপজেলার পাকুরিয়া ইউনিয়নের চকপাড়ায়।

সাংবাদিক আবদুল মজিদ গত ২০ বছর ধরে জাতীয় দৈনিক ভোরের ডাক, সংবাদ, সমকাল ও বেসরকারি চ্যানেল বৈশাখী টেলিভিশনে কূটনৈতিক প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করেন। এখন তিনি ঢাকা ডিপ্লোম্যাট ডটকম নামে কূটনীতি বিষয়ক অনলাইন পত্রিকা সম্পাদনা করছেন। আবদুল মজিদ কূটনৈতিক সংবাদদাতাদের সংগঠন ডিক্যাব-বাংলাদেশ কূটনৈতিক সংবাদদাতা সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

সাংবাদিকদের রুটি, রুজি ও অধিকার আন্দোলনেও সোচ্চার আবদুল মজিদ। তিনি ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) নির্বাচিত প্রচার সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুগ্ম-সম্পাদক ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ বুকে ধারণ করেন সাংবাদিক আবদুল মজিদ। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য দিসেবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন। আগামী ২৫-২৬ অক্টোবর বাকুতে ন্যাম শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গীদের মধ্যে আরও রয়েছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড এ কে আব্দুল মোমেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, প্রধানমন্ত্রীর সচিব সাজ্জাদুল হাসান, পররাষ্ট্র সচিব মোঃ শহীদুল হক, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন, আজারবাইজানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত (সমদূরবর্তী দায়িতবপ্রাপ্ত) এম আল্লামা সিদ্দিকী, এফবিসিসিআই-এর সাবেক সভাপতি মোঃ সফিউল ইসলাম প্রমুখ। আগামী ২৭ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।