পুলিশের ধাওয়াতে জুয়ারীর মৃত্যু

জুয়া খেলা অবস্থায় জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলায় পুলিশের ধাওয়া খেয়ে নদীতে লাফ দেয়ার ২ দিন পর ইসমাইল হোসেন নামে এক অটোচালকের লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিরা।তার বয়স ৪০ বছর। ঝালুপাড়া এলাকার ঝিনাই নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।
জানা যায় যে, পৌরসভার সামর্থ্যবাড়ী গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে অটোবাইক চালক ইসমাইল হোসেন গত রোববার রাতে ঝালুপাড়া এলাকা ঝিনাই নদীর পাড়ে সহপাটি জহুরুল ইসলাম ফকির, খলিলুর রহমান, বাবু মিয়া ও হাফিজুর রহমানকে নিয়ে জুয়া খেলতে ছিল।জুয়ার খবর পেয়ে পুলিশ হাজির হয় ঘটনাস্থলে।

তারা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করে ।সরিষাবাড়ী থানার পুলিশও তাদর পিছু পিছু ধাওয়া করে। পুলিশের ধাওয়া খেয়ে জুয়ারীরা ভয়ে নদীতে লাফ দেয়। এ সময় হাফিজুর রহমান নামে এক জুয়ারীকে পুলিশ আটক করে।

পরদিন এলাকায় জানাজানি হয় যে,পুলিশের ধাওয়ায় নদী সাঁতরিয়ে সবাই পালালেও ইসমাইল হোসেনকে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে স্থানীয় লোকজন নদীতে দিনভর খোঁজাখুজি করলেও তার কোন সন্ধান পায়নি। পরে এলাকার মানুষের চাপের মুখে পুলিশ সরিষাবাড়ী দমকল বাহিনীর সহযোগিতা চান। সরিষাবাড়ী দমকল অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজহারুল ইসলাম জানান, পুলিশের সহযোগিতার জন্য ময়মনসিংহ দমকল বাহিনীর একটি ইউনিটের ৩ জন ডুবুরি আনা হয়। এ ডুবুরিরা সকাল থেকে প্রায় ৪ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে ঝিনাই নদী হতে নিখোঁজ ইসমাইল হোসেনের লাশ উদ্ধার করেন।

সূত্র : পূর্বপশ্চিম

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।