You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

পানিতে নিখোঁজের তিনদিন পর বৃদ্ধের মরদেহ কংশ নদী থেকে উদ্ধার

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় হাফেজআলী (৬৮) নামে এক রিক্সা চালক ভোগাই নদীর ঢলের পানিতে লাকরি ধরতে গিয়ে ভেসে যাওয়া তিন দিন পর পার্শ্ববতী ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট উপজেলার কংশ নদীর শাক্ষুয়াই এলাকা থেকে তার মরদেহউদ্ধার করেছে পুলিশ। ২৬আগস্ট রবিবার দুপুর ৩টার দিকে হালুয়াঘাট উপজেলা কংশ নদীর শাক্ষুয়াই এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত শুক্রবার (২৪ আগষ্ট) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার নিচপাড়া এলাকায় ভোগাই নদীর ঢলের পানিতে লাকরি ধরতে গিয়ে হাফেজ আলী নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুজি করার পর রবিবার দুপুরে স্থানীয়রা কংশ নদীতে একটি মরদেহ ভাসতে দেখে পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করলে নিখোঁজ হওয়া হাফেজ আলীর আতœীয় স্বজনরা তার লাশ সনাক্ত করে। সে নালিতাবাড়ী উপজেলার নালিতাবাড়ী ইউনিয়নের নিচপাড়া এলাকার মৃত হোসেন আলীর ছেলে।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার উজানে ভারী বর্ষন ও বৃষ্টির কারণে হঠাৎ নালিতাবাড়ী উপজেলার ভোগাই নদীতে আকস্মিক ঢল আসে, ঢলের পানির সাথে পাহাড় থেকে লাকরি ভেসে আসতে থাকে।ঐদিন এলাকার অনেক লোকজনের সাথে হাফেজ আলী রশীতে আংটা লাগিয়ে নদীর পাড়ে দাড়ীয়ে লাকরি ধরতে ছিল,এসময় আংটায় একটি বড় লাকরি আটকিলে রশী জোরে টানতে গিয়ে হঠাত পা পিছলে নদীর পার থেকে ঢলের পানির গভীর পানির স্রোতে পড়ে ভেসে যায় হাফেজ।পরে অনেক খোজা খোজি করার পরও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

নালিতাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভোগাই নদীর ঢলের পানিতে ভেসে নিখোজ হওয়া হাফেজ আলীর মরদেহ বোববার দুপুরে হালুয়াঘাট উপজেলার কংশ নদীর শাক্ষুয়াই এলাকা থেকে পুলিশ উদ্ধার করেছে।হালুয়াঘাট থানায় আইনী প্রক্রিয়া সমপূর্ণ করে তার মরদেহ নালিতাবাড়ীতে আনার প্রস্তুতি চলছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!