পরিচয় মিলেছে অজ্ঞাত চোর সন্দেহ করা যুবকটির


অবশেষে পরিচয় মিলেছে অজ্ঞাত চোর সন্দেহ করা যুবকটির । সে মানসিক প্রতিবন্ধী বলে জানিয়েছে ওই যুবকের স্বজনরা। নিহত ওই যুবকের নাম উসমান গনি । সেই সদর উপজেলার চকসাহাব্দী মধ্যপাড়ার মুস্তা আলী ওরফে মজিদ আলী ছেলে। ওই যুবক ইতিপূর্বে পাবনা মানষিক হাসপাতালে ভর্তি ছিল। ফেসবুকসহ নানা মাধ্যমে ছবি প্রকাশিত হওয়ার পর নিহত উসমান আলীর মামা ও চাচাত ভাই মরদেহের ছবি দেখে সনাক্ত করেন।

উল্লেখ্য ,আজ ভোররাতে সদর উপজেলার চরমোচারিয়া ইউনিয়নের নন্দীর বাজার টালিয়াপাড়া গ্রামের সুজনের বাড়ীতে গেল রাত আনুমানিক ৪ টার দিকে চোর প্রবেশ করলে টের পেয়ে যান সুজনসহ বাড়ীর অন্যান্যরা। তখন তিনি ঘর থেকে বের হয়ে টর্চলাইটের অলোতে বাড়ীর চারদিক দেখতে থাকলে একপর্যায়ে লাইটের আলো পড়ে অজ্ঞাত ওই চোরের শরীলের উপর ।

এ অবস্থায় চোর দৌড়ে বাড়ীর পাশে থাকা কচুরীপানায় ভরপুর ডুবায় ডুব দেন । পরে স্থানীয়রা তাকে উঠে আসতে বললেও উঠে না আসায় খবর দেয়া হয় পুলিশকে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলের ওই ডুবায় থেকে ওই চোরকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। পরে শেরপুর সদর হাসপাতালে থাকা মরদেহটি সনাক্ত করতে জামালপুর থেকে পিবিআই সদস্যরা এসে মরদেহের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সংগ্রহ করে। ‏

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।