নড়াইল এক্সপ্রেস’ ৩,শাহাদাত১,তাসকিন১

ভারতের মাটিতে বাংলাদেশের টেস্ট অভিযাত্রা শুরু হলো প্রথম ওভারেই উইকেট নিয়ে। ম্যাচের প্রথম ওভারে উইকেটের স্বাদ খুব বেশি পায়নি বাংলাদেশ। হায়দরাবাদ টেস্ট দিয়ে এটি হলো মাত্র পঞ্চমবার।

বলার অপেক্ষা রাখে না, এখানেও বাংলাদেশের সবাইকে ছাড়িয়ে মাশরাফি বিন মুর্তজা। গায়ের পোশাক রঙিন হোক বা সাদা, প্রথম ওভারের রাজা মাশরাফিই। সীমিত ওভারে বাংলাদেশ বেশ কটি জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছেন প্রথম ওভারেই বা প্রথম উইকেট নিয়ে। টেস্টেও ম্যাচের প্রথম ওভারে উইকেট নিয়েছেন তিনবার।

প্রথমটি ২০০১ সালে। মাশরাফির সেটি তৃতীয় টেস্ট, বিদেশের মাটিতে প্রথম। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে হ্যামিল্টনে নিজের বলে ক্যাচ নিয়ে ফিরিয়েছিলেন লু ভিনসেন্টকে।

পরেরটি প্রায় ৬ বছর পর। বোলার সেই মাশরাফি। যারা দেখেছিলেন, অনেকেরই এখনও চোখে চোখে ভাসে সেই আউটের দৃশ্য। ভারতের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট। ম্যাচের প্রথম ওভারই শুধু নয়, প্রথম বল। মাশরাফির বল বাইরে যাবে ভেবে ছেড়ে দিলেন ভারতীয় ওপেনার ওয়াসিম জাফর। বল ভেতরে ঢুকে উড়িয়ে নিল জাফরের অফ স্টাম্প!

সেই ম্যাচে ‘পেয়ার’ পেয়েছিলেন জাফর। দ্বিতীয় ইনিংসে শূন্য রানে আউট হয়েছিলেন শাহাদাত হোসেনের বলে।

প্রথম ওভারের শিকার তৃতীয়বারও ধরেছিলেন মাশরাফিই। এবারও ভেন্যু চট্টগ্রাম। প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান প্রসন্ন জয়াবর্ধনেকে সেই টেস্টে ওপেন করিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। আবারও ভেতরে ঢোকা বল। ম্যাচের চতুর্থ বলে এলবিডব্লিউ প্রসন্ন।

মাশরাফি তিন বারের পর বাংলাদেশের দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ম্যাচের প্রথম ওভারে উইকেটের স্বাদ পেয়েছিলেন শাহাদাত। ২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে। আউট সুইঙ্গারে কটবিহাইন্ড হয়েছিলেন ভুসি সিবান্দা।

পূর্বসূরিদের মত এবার সেই স্বাদ পেলেন তাসকিন। স্বাদটি নিয়মিতই পেতে চাইবেন!

 

 

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের