You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের অভিযানে ২ টি সরকারী খাস পুকুর উদ্ধার

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসন কাকরকান্দি ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে দখল করে রাখা প্রায় ২ একর জমিতে তৈরিকৃত দর্গাদিঘী ও রামচন্দ্রকুড়া ইউনিয়নের মায়াঘাষি গ্রামের প্রায় ৪ একর জমিতে তৈরিকৃত মায়াঘাষি পুকুরসহ মোট ২টি সরকারী খাস পুকুর রবিবার (১৭ মার্চ) দুপুরে অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে উচ্ছেদ করে তা উদ্ধার করেছেন।

উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার সরকারী খাস পুকুর ২টি দীর্ঘদিন যাবত নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের ছত্রছায়ায় অসাধু ব্যক্তিরা দখল করে মাছচাষ করে আসছিল। রবিবার দুপুরে নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসন ও ভুমি অফিস যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে উচ্ছেদ করে ওই ২টি পুকুর থেকে মাছ ধরে প্রায় ১০ হাজার টাকার মাছ বিক্রি করে সরকারী কোষাগারে জমা করা হয়েছে। আর কিছু মাছ স্থানীয় গরীব অসহায়দের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া উপজেলা প্রশাসন আগামী বাংলা ১৪২৬ সনের জন্য ওই পুকুর ২টি ইজারা দেয়ার জন্য দরপত্র আহবান করেছেন।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আরিফুর রহমান জানান, রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় কতিপয় অসাধু ব্যক্তি উপজেলার বেশ কয়েকটি সরকারী পুকুর অবৈধভাবে ভোগদখল করে আসছিল। এসব পুকুর অবৈধ দখলদারের হাত থেকে উদ্ধারের ধারাবাহিক অভিযানের অংশ হিসেবে দর্গাদিঘী ও মায়াঘাসি গ্রামের পুকুরটি রবিবার উদ্ধার করা হয়েছে। ওই পুকুরের মাছ প্রায় ১০ হাজার টাকায় বিক্রি করে সরকারী কোষাগারে জমা করা হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় গরীব অসহায়দের খাবার জন্য কিছু মাছ বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সরকারী পুকুর কেউই অবৈধভাবে দখল করে রাখতে পারবে না। এসব পুকুর উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ সময় তার সাথে ছিলেন নালিতাবাড়ীর সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লুবনা শারমিন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!