নালিতাবাড়ীর ইউএনও আরিফুর রহমান

:মোস্তাফিজুর রহমান জুয়েল:

শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আরিফুর রহমান একজন সৎ সাহসী সরকারী কর্মকর্তা। তিনি নালিতাবাড়ী উপজেলার দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই এই উপজেলায় কমে এসেছে বাল্য বিবাহ। পাশাপাশি বেড়েছে শিক্ষার হার। যেখানে আগে স্কুল পড়ুয়া মেয়েদের তাদের অভিভাবকরা অল্প বয়সেই বিয়ে দিয়ে দিতো এখন এই বিষয়টি অনেকটাই কমে গেছে সেই বাল্য বিবাহ। ঘুষ, মাদক, দূর্নীতি, নদীর উপর নির্মিত ব্রীজ রক্ষা, ভাঙনরক্ষা ও ভেজাল বিরোধী অভিযানে ইউএনও এর ভূমিকা প্রশংসনীয়।
অনেকেই বলেন, আরিফুর রহমান হলেন অসহায় গরীব দূঃখী মানুষের প্রাণ। তিনি তার নীতি আদর্শ থেকে চুল পরিমান এদিক সেদিক নরতে রাজি নন। কোন প্রকার ঘুষ গ্রহণ, দূর্নীতি তিনি নিজেও করেন না এবং অন্যকেও এ বিষয়ে প্রশ্রয় দেন না। তিনি সর্বদা মনে করেন মানুষ মানুষের জন্য। সহজ কথায় বলা চলে সাদা মনের মানুষ তিনি।
ইউএনও আরিফুর রহমান বলেন, আমরা হলাম সরকারী কর্মকর্তা এবং আমাদের কাজ সরকার জনগনকে যা দিচ্ছে তা জনগনের কাছে বুঝিয়ে দেয়া। যেন কোন মানুষ তার হক থেকে বঞ্চিত না হয়। আমাকে যে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তা সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করে যেতে চাই। তিনি নালিতাবাড়ী উপজেলাকে একটি আধুনিক ও সবুজ শহরে পরিনত করতে সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।
তিনি আরও বলেন, আমাদের কাজের জন্য সরকার আমাদের বেতন দিচ্ছে তাহলে আমরা কেন আপত্তি এবং দূর্নীতি করবো। ইউএনও আরিফুর রহমান দিন রাত কাজ করেন জনগনের স্বার্থে। তিনি ছুটে চলেছেন নালিতাবাড়ী উপজেলার সব জায়গায়। তিনি সব সময় চান অসহায় মানুষের পাশে থেকে তাদের ভালবাসা পেতে। ইতোমধ্যে তিনি এসব কাজের প্রমাণ রেখে চলেছেন। আমরা নালিতাবাড়ীবাসী তার কর্মনিষ্ঠা এবং সততায় মুগ্ধ হয়েছি। আশা করি সামনের দিনগুলোতে তিনি নালিতাবাড়ীবাসীকে আরো ভালো কাজ করে দেখিয়ে দিয়ে সকল শ্রেণির মানুষেন হৃদয়ে জায়গা করে নিবেন।
:লেখক সংবাদকর্মী:
সম্পাদনা: এম. সুরুজ্জামান, বার্তা সম্পাদক, শেরপুর টাইমস ডটকম।
শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।