নালিতাবাড়ীতে স্বর্ণের বার প্রতারক চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ভুয়া স্বর্ণের বার দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে সঙ্গে থাকা গয়না-ঘাটি ও অর্থ হাতিয়ে নেওয়া প্রতারকচক্রের দুই সদস্যকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এক নারী। সোমবার (৮ এপ্রিল) বেলা বারোটার দিকে পৌর শহরের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার দণি মাটিভাঙ্গা গ্রামের আব্দুল মালেকের কন্যা হালিমা বেগম ওরফে চম্পা (২৫) এবং নেত্রকোণা জেলার নান্দাইল উপজেলার কয়রাপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে জুয়েল মিয়া (৩৫) অজ্ঞাতনামা আরও দুই সঙ্গী নিয়ে সোমবার নালিতাবাড়ীতে আসেন। পরে বেলা বারোটার দিকে তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে যায়। এসময় তারা চিকিৎসকের কাছে আসা শহরের মাহবুব হাসানের স্ত্রী লুৎফা’র সাথে প্রতারণাপূর্বক অর্থকড়ি বা স্বর্ণালঙ্কারের বিনিময়ে স্বর্ণের বার সদৃশ্য ধাতব খন্ড দেখায় এবং তাকে নেওয়ার জন্য প্রলুব্ধ করে। বিষয়টি বুঝতে পেরে লুৎফা প্রতারক জুয়েলকে ধরে ফেলে। এসময় অপর প্রতারক চম্পা লুৎফাকে আঘাত করলে লোকজন জড়ো হয়ে যায়। এতে দুই প্রতারক সটকে পড়লেও আটক করা হয় চম্পা ও জুয়েলকে। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ উভয়কে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়।
প্রতারকচক্রের সদস্যরা জানায়, তারা ত্রিশালের বৈলর এলাকায় ভাড়া থেকে বিভিন্নস্থানে প্রতারণা চালিয়ে আসছে।
নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. সারোয়ার হোসেন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ বিষয়ে থানায় মামলা নেওয়া হয়েছে। জেল হাজতে প্রেরণের সময় প্রতারকদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড আবেদন করা হবে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের