You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

নালিতাবাড়ীতে সাংবাদিকের বাড়িতে হামলা

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে প্রশাসনকে বাল্য বিয়ের খবর দেওয়ার সন্দেহে প্রতিবেশী সাংবাদিকের বাড়িতে হামলার অভিযোগ উঠেছে কনে পক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী সাংবাদিকের নাম আল হেলাল। তিনি দৈনিক সংগ্রামের নালিতাবাড়ী উপজেলা সংবাদদাতা।

শনিবার (১০ মার্চ) সকাল ও শুক্রবার রাতে দুই দফায় ওই সাংবাদিকের বাড়িতে হামলা করা হয়েছে।

পুলিশ, ভুক্তভোগী সাংবাদিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার উপজেলার মরিচপুরান ইউনিয়নের কোন্ননগর গ্রামের ফকিরপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্রীর বাল্য বিয়ের প্রস্তুতি চলছিল। বর একই উপজেলার কাকরকান্দি ইউনিয়নের সোহাগপুর গ্রামের ওয়াজেদ আলীর পুত্র বিল্লাল হোসেন (১৮)।

ওই বাল্য বিয়ের খবর পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাহিদুর রহমান শুক্রবার (৯ মার্চ) বিকেলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন। পরে প্রতিবেশী সাংবাদিক আল হেলাল বাল্য বিয়ের খবর প্রশাসনকে দিয়েছে এমন সন্দেহ হয় কনে পক্ষের। এতে কনে পক্ষের লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে সাংবাদিকের বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।

এ সময় সাংবাদিকের মামা মসজিদের ইমাম ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আশরাফ আলীকেও মারধর করা হয়।

এ ব্যাপারে কনের চাচা ফজলুল হক বললে, সাংবাদিকের বাড়িতে আমরা কোন হামলা করিনি। সামান্য কথা কাটাকাটি হয়েছে। এরই জের ধরে আমার বাবা হেকমত আলীকে সাংবাদিকের লোকজন মারধর করেছে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাহিদুর রহমান বলেন, শুক্রবার কনের চাচা ও মায়ের মুচলেকা নিয়ে বাল্য বিয়েটি বন্ধ করা হয়। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হয়ে কারও ওপর হামলা করা ঠিক নয়। বিষয়টির আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সরোয়ার হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!