নালিতাবাড়ীতে অস্ত্র মামলায় যুবলীগ নেতাকে আদালতে প্রেরণ

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় নিখোঁজের পাঁচ দিন পর বুধবার (২৯ জানুয়ারী) এক যুবলীগ নেতাকে অস্ত্র মামলায় আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ সন্তানের সন্ধান চেয়ে তার পরিবারের লোকজন বুধবার সকালে স্থানীয় প্রেসক্লাবে এসে এক সংবাদ সম্মেলন করেন। গ্রেপ্তারকৃত এই যুবকের নাম মো. সোহেল মিয়া (৩০)। তিনি পৌর শহরের দক্ষিণ বাজার এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে। সোহেল শহর যুব লীগের সহ-সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন।

পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শেরপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের আভিযানিকদল গতকাল মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারী) সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে নালিতাবাড়ী উপজেলার গড়কান্দা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। সোহেলের দেয়া তথ্যমতে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা উপজেলার নয়াবিল এলাকা থেকে একটি পাইপগান ও দুটি গুলি উদ্ধার করেন। পরে গতকাল মঙ্গলবার রাতেই সোহেল মিয়ার বিরুদ্ধে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। বুধবার সকালে গোয়েন্দা পুলিশ সোহেলের রিমান্ড চেয়ে আদালতে সোপর্দ করেন। শুনানী শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ।

অপরদিকে, নিখোঁজ সোহেলের সন্ধানের জন্য সহযোগীতা চেয়ে বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে সোহেলের পরিবার স্থানীয় প্রেসক্লাবে এসে সাংবাদিকদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন। এসময় সোহেলের স্ত্রী লুৎফুন্নাহার শিফা সাংবাদিকদের বলেন, আমার স্বামী সোহেল মিয়া নালিতাবাড়ী শহর যুবলীগের সহ-সভাপতি পদে রয়েছেন। তাকে একটি মিথ্যা বানোয়াট হত্যা মামলার কারনে বেশ কয়েক মাস কারাগারে ছিলেন। পরে উচ্চ আদালত থেকে গত ১৬ জানুয়ারী সে জামিন পায়। গত ২৫ জানুয়ারী তারিখে পৌর শহরের গড়কান্দা এলাকার একটি তেলের পাম্প থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। কিন্তু সোহেল মিয়ার পরিবার একাধিকবার নালিতাবাড়ী থানায় যোগাযোগ করা হলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি অস্বীকার করে বলে পরিবারটি জানায়। এসময় তারা একটি সিসিটিভির ভিডিও ফুটেজ সংবাদিকদের কাছে হস্তান্তর করেন। ওই সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, নালিতাবাড়ী থানার এসআই ওয়ারেজ মিয়া পুলিশের পোশাক পরিহিত ও তার সাথে লাল শীতের কাপড় পরিহিত আরেকজন পুলিশ যুবলীগ নেতা সোহেলকে হাতকড়া পড়িয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

শেরপুরের গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, সোহেলের দেয়া তথ্যমতে তাকে নিয়ে উপজেলার নয়াবিল এলাকায় থেকে একটি পাইপগান ও দুইটি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে গোয়েন্দা পুলিশ বাদি হয়ে সোহেলের নামে অস্ত্র আইনে নালিতাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বছির আহমেদ বাদল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষ থেকে গতকাল মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে মামলা নম্বর ৩৭।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।