নকলায় স্কুলছাত্র অমি হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে দেয়ালে দেয়ালে পোষ্টার

শেরপুরের জেলার নালিতাবাড়ী শহরের শাহীন স্কুলের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী আকিব ইসলাম খান অমি হত্যাকারীদের বিচার দাবীতে সুচ্চার হয়ে উঠেছে নালিতাবাড়ী উপজেলাবাসী। বিভিন্ন সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে দফায় দফায় করা হচ্ছে মানববন্ধন।

এর ধারাবাহিকতায় এবার নকলা উপজেলার দেয়ালে দেয়ালে পোষ্টার লাগিয়ে অমি হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবী জানানো হয়েছে। উপজেলা শহরের প্রায় প্রতিটি ভবনের দেওয়াল, গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও জনবহুল এলাকায় লাগানো হয়েছে অমির অগের ও মরদেহের ছবি এবং অমি হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবী সম্বলিত পোষ্টার। এইসব পোষ্টার পড়ছেন সর্বসাধারণ, আর ফেলছেন চোখের পানি। বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) বিকেলে নকলা উপজেলার অফিসার্স ক্লাবের পিছনের দেওয়ালে লাগানো পোষ্টার পড়ার সময় অনেকের সাথে কথা হয়। তারা সবাই ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী আকিব ইসলাম খান অমি হত্যাকারীদের বিচার দাবীকে সমর্থন করে তাঁরা সবাই নিজ নিজ মন্তব্য প্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে নকলা ডাক বাংলোর কেয়ারটেকার নূর হোসেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শহিদুল ইসলাম, চঞ্চল, ব্যবসায়ী সুমন, গৃহিনী রোকেয়া বেগম ও নাসরিন আক্তারসহ অনেকে দু:খ ভারাক্রান্ত মনে জানান, এমন মেধাবী শিশু শিক্ষার্থীকে যারা হত্যা করতে পারে, তারা মানুষ নহে; তারা নি:সন্দেহে হিং¯্র জানোয়ার তুল্য। ওইসব খুনি জানোয়ারদের সর্বোচ্চ শাস্তির (ফাঁসি) দাবী জানান তাঁরা। তাঁরা বলেন, এমন হত্যার সুষ্ঠু বিচার না হলে, ভবিষ্যতে হত্যাকারীরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠতে পারে। ফলে বাড়তে পারে হত্যা-খুনের মাত্রা।

উল্লেখ্য, আকিব ইসলাম খান অমি নালিতাবাড়ী উপজেলা শহরের পূর্ব কালিনগর মহল্লার আব্দুর রউফ খানের ছেলে এবং স্থানীয় শাহীন স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলো। সে গত ২ নভেম্বর শনিবার বিকেলে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। পরে ৬ নভেম্বর বুধবার দুপুরে অমির বাড়ির নিকটের একটি ধানক্ষেত থেকে তার বস্তাবন্দী মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মুক্তিপণের লোভে অমিকে কৌশলে ডেকে নিয়ে হত্যা করার অভিযোগে নালিতাবাড়ী থানায় অমির পরিবারের পক্ষ থেকে একটি হত্যা মামলা দায়েরের পরে, জড়িত থাকার অভিযোগে বেশ কয়েক জনকে গ্রেফতার করেছে থানার পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা বর্তমানে জেল-হাজতে আছে।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।