You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

নকলায় আধুনিক পদ্ধতিতে ধান চাষাবাদের ওপর কৃষক প্রশিক্ষণ মাঠ দিবস

শেরপুরে আধুনিক পদ্ধতিতে ধান চাষাবাদের ওপর কৃষক প্রশিক্ষণ মাঠ দিবস করেছে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি)। নকলা উপজেলার কায়দা গ্রামে ব্রি উদ্ভাবিত ব্রি ধান-৭১ ও ব্রি ধান-৭৫ প্রদর্শনী প্লটের পাশে ৪ নবেম্বর শনিবার এ মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। ব্রি গাজীপুরের ফলিত গবেষণা বিভাগ শেরপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহায়তায় এ মাঠ দিবসের আয়োজন করে।
মাঠ দিবসে ব্রি উদ্ভাবিত নতুন জাতের ধান ব্রি ধান-৭১ ও ব্রি ধান-৭৫ চাষপদ্ধতি, কলাকৌশল ও প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন প্রধান অতিথি ব্রি মহাপরিচালক ড. শাহজাহান কবীর এবং ব্রি’র উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা বিশ^জিৎ কর্মকার। শেরপুর খামার বাড়ীর উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. আশরাফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে আবাদকারি কৃষক, স্থানীয় আ’লীগ নেতৃবৃন্দ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে স্থানীয় ও আশপাশের এলাকার শতাধিক কৃষক-কৃষানী উপস্থিত ছিলেন।
কৃষক আবু হানিফার ২ বিঘা জমির ব্রি ধান-৭৫ কর্তন করে ৩৪ মণ এবং মারফত আলীর এক বিঘা জমির ব্রি ধান-৭১ কর্তন করে ১৮ মণ ফলন পাওয়া যায়। স্বল্প জীবনকালের এসব ধান রোপনের ১১০-১১৫ দিনের মধ্যেই ফসল কেটে ঘরে তুলতে পারা যায়। আগাম জাতের এ ধান কাটার পর তারা ওই জমিতে এখন আলু এবং সরিষা আবাদের চিন্তা করছেন। আলু/সরিষা তোলার পর সেই জমিতেই আবার তারা বোরো রোপন করবেন বলে জানান।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!