ট্রেন দেখে নদীতে ঝাঁপ, যুবকের মৃত্যু

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় রেলসেতু থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে শিবলু হোসেন (২৮) নামে এক যুবক প্রাণ হারিয়েছেন। শনিবার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। নিহত শিবলু চাটমোহর পৌর শহরের ছোটশালিখা গ্রামের রফিক হোসেনের ছেলে। তিনি পেশায় অটোভ্যান চালক। দীর্ঘদিন যাবত ভাঙ্গুড়া রেলস্টেশন এলাকায় বসবাস করতেন তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বড়াল রেলসেতুর ওপর বসে ছিলেন শিবলু। এ সময় আচমকা ট্রেন এসে পড়ায় আতঙ্কিত হয়ে জীবন বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপ দেন তিনি। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে রাজশাহীতে ডুবুরি দলকে খবর দেয়। শনিবার সকাল সকাল ১০টায় রাজশাহী ডুবুরি দলের সদস্যরা দেড় ঘণ্টা তল্লাশি চালিয়ে শিবলুর মরদেহ উদ্ধার করেন।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মো. মাসুদ রানা জানান, শিবলু মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়ে পানিতে তলিয়ে যান। মরদেহ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সূত্র: সমকাল।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের