You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

ঝিনাইগাতীতে মৃৎ শিল্পীর সন্তান পেয়েছে জিপিএ-৫।। আর্থিক সংকটে পড়ালেখায় অনিশ্চয়তা

ইচ্ছে, আন্তরিকতা ও নিরলস পরিশ্রম থাকলে যে কোন কঠিন কাজেই যে সাফল্য পাওয়া যায় তারই প্রমাণ দিল শেরপুরের ঝিনাইগাতীর পাল পাড়া গ্রামের মৃৎ শিল্পী কারিগরের ছেলে তপন কুমার পাল। দারিদ্রকে জয় করে তপন উপজেলার মালিঝিকান্দা উচ্চ বিদ্যালয় হতে এবার ২০১৭ সালের এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে।

তপন উপজেলার মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের পাল পাড়া গ্রামের গোপাল চন্দ্র পালের ছেলে। তপন জিপিএ-৫ পাওয়ায় খুশি তার বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও এলাকাবাসী। কিন্তু চিন্তুা তার পিছু ছাড়ছে না যেন। ভালো কলেজে ভর্তি, পড়া-শোনার খরচ ইত্যাদি নিয়ে চিন্তিত এ শিক্ষার্থী এবং তার অভিভাবক। তপন ভবিষ্যতে উচ্চ শিক্ষা অর্জন করে ইঞ্জিয়ার হতে চাই।

তপনদের নেই কোনো ফসলি জমি। বসতভিটার সামান্য জমিতে একটি মাত্র ঘর। তপনের বাবা ও মা মৃৎ শিল্পীর কাজ করেন। বাবা-মায়ের সামান্য আয়ে সংসারই চলে না তাদের। পাশা-পাশি তপনও বাবা-মা’র কাজে সাহায্য করেন।

তপনের বাবা গোপাল চন্দ্র পাল বলেন, আমি আমার ছেলেকে ভালো কলেজে ভর্তি করিয়ে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে চাই। তবে এতো খরচ কীভাবে আসবে, তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছি। সমাজের কেউ তার ছেলের পড়া-শোনার জন্য এগিয়ে আসলে উপকৃত হবেন তারা।

এ ব্যাপারে মালিঝিকান্দা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. রবিউল ইসলাম বলেন, আমাদের প্রত্যাশিত ফলাফল অর্জন করেছে তপন। সে অনেক মেধাবী। পড়াশোনা চালিয়ে যেতে হলে তার আার্থিক সহায়তা প্রয়োজন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!