ঝিনাইগাতীতে ব্রয়লার মুরগির দাম কম লোকসানে খামারিরা

:ছবি সংগৃহীত:

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে করোনাভাইরাস আতঙ্কে হঠাৎ করে ব্রয়লার জাতের মুরগির দাম কেজিপ্রতি কমেছে ৩৫-৪০ টাকা। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) বাজারে ব্রয়লার জাতের মুরগি ৭৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। এতে লোকসানের মুখে পড়ে খামারিরা এখন দিশেহারা।

খামারিদের দাবি প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগির উৎপাদন খরচ ৯০-৯৫ টাকা। কিন্তু বিক্রি করতে হচ্ছে ৫৫-৬৫টাকায়। আর বাজারে ব্যবসায়ীরা বিক্রি করছে ৭৫ টাকা। এতে বড় ধরনের লোকসান পড়তে হচ্ছে খামারিদের।

উপজেলার ধানশাইল গ্রামের খামারি খোকন ও পানবর গ্রামের সাইফুল জানান, কেজিপ্রতি মুরগিতে ৩০ টাকা থেকে ৪০ টাকা লোকসান দিতে হচ্ছে তাদের। ব্যবসা টিকিয়ে রাখাই দায় হয়ে পড়েছে।

উপজেলার আহাম্মদনগর গ্রামের খামারি সিরাজ বলেন, ‘আমি ব্রয়লার জাতের মুরগি ৩০ দিন পরিচর্যা করে বুধবার (২৫ মার্চ) দুই হাজার মুরগি কেজিপ্রতি ৫০ টাকা দরে বিক্রি করেছি। এতে আমার লোকসান হয়েছে প্রায় ২ লাখ টাকা।’

হাবিব পোল্ট্রি এন্ড ফিস ফিডের স্বত্বাধিকারী আলম বলেন, ‘এ উপজেলার আমি প্রায় ৫০-৫৫টি খামারিকে ব্রয়লার মুরগির বাচ্চা দিয়ে থাকি। করোনাভাইরাস আতঙ্কে ঢাকা ও স্থানীয় ভাবে ব্রয়লার মুরগির চাহিদা কমে যাওয়ায় কেজিপ্রতি ৩৫-৪০ টাকা কমে গেছে। এতে বেশির ভাগ খামারির লোকসান হচ্ছে।’

এ ব্যাপারে ঝিনাইগাতী উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. এটিএম ফায়জুর রাজ্জাক আকন্দ বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে মানুষ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বাহিরে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। স্থানীয়ভাবে ব্রয়লার মুরগির চাহিদা কমে যাওয়ায় ও ঢাকা, গাজিপুরে মুরগি সরবারহ করতে না পারার কারণে হয়ত মুরগির দাম কিছুটা কমে যেতে পারে, এটা কোন রোগের প্রাদুর্ভাবে দাম কমে যায়নি।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।