ঝিনাইগাতীতে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন

‘আদিবাসী ভাষা চর্চা ও সংক্ষরণে এগিয়ে আসুন’ এ স্লোগানে শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপিত হয়েছে। শুক্রবার (৯ আগস্ট) দিনব্যাপি উপজেলা ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন (টিডব্লিউএ), বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস), মরিয়মনগর ওয়াইএমসিএ, কারিতাস সিডস কর্মসূচীর পিও (এডুকেশন) যৌথভাবে আয়োজিত র‌্যালী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপন করা হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা পরিষদ চত্তর থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে পুনরায় ওই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।

পরে ওইখানে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভাপতি মি. নবেশ খকশি। এতে বক্তব্য দেন জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আবু তাহের, বাগাছাস উপজেলা শাখার সহসভাপতি সৌহার্দ্য চিরান, সিল ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের ঝিনাইগাতী ব্রাঞ্চ ম্যানেজার রুয়েল কোচ, কোচ কালচারাল ডেভলপম্যান্ট একাডেমি ও পিলাচ এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি যুগল কিশোর কোচ, মরিয়মনগর ওয়াইএমসিএ’র সভাপতি পবিত্র ¤্রং প্রমুখ।

বক্তারা আদিবাসীদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি, ভূমি অধিকার, আদিবাসীদের মাতৃভাষা চর্চা ও সংরক্ষণে সরকারী জোর পদক্ষেপ, সমতলের আদিবাসীদের জন্য পৃথক ভূমি কমিশন গঠন, অনগ্রসর, নির্যাতিত ও সুযোগ বঞ্চিত আদিবাসী জনগোষ্ঠির সার্বিক উন্নয়নের জন্য সরকারের প্রতি যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহনের ও দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য দাবি জানান।

বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার মরিয়মনগর কমিউনিটি সেন্টার মাঠে স্থানীয় আদিবাসী শিল্পীদের সমন্বয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তাদের ভাষায় গান ও নৃত্য পরিবেশিত হয়।

এ সময় গারো, কোচ, বানাই, বর্মণ, হাজং আদিবাসী সম্প্রদায়ের প্রায় তিন শতাধিক নারী-পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।

 

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।