You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

ঝিনাইগাতীতে আদিবাসী স্কুলছাত্রী ধর্ষণের শিকার: একজন গ্রেপ্তার

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে আদিবাসী এক স্কুলছাত্রী (১১) ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ঝিনাইগাতী থানা পুলিশ গত ১২ মে শুক্রবার মধ্যরাতে সুজন মারাক (২০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। সুজন উপজেলার বাকাকুড়া গ্রামের থিদল মারাকের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২ মে সকালে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীটির বাবা-মা কাজের সন্ধানে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। ওইদিন দুপুরে ছাত্রীটি বিদ্যালয় থেকে বাড়িতে আসার পর উৎপেতে থাকা প্রতিবেশী বখাটে যুবক সুজন ছাত্রীর ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় সে ছাত্রীটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং ঘটনাটি কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেয়।

পরে ছাত্রীটির বাবা-মা বাড়ি ফিরে এলে তাঁদেরকে সে ঘটনাটি জানায়। এরপর বিষয়টি স্থানীয়ভাবে আদিবাসীরা মীমাংসার উদ্যোগ নিলেও মীমাংসা না হওয়ায় গত ১২ মে শুক্রবার রাতে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীটির মা বাদী হয়ে সুজনকে আসামি করে ঝিনাইগাতী থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ সুজনকে গ্রেপ্তার করে।

ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তার সুজনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ধর্ষণের শিকার ছাত্রীটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!