ছয় পেরিয়ে সপ্তম বছরে শেরপুর টাইমস

প্রভাষক মহিউদ্দিন সোহেল :

আজ আমার আনন্দের একটি দিন। ভিতরে জমে থাকা নি:শ্বাস ঝেড়ে ফেললাম অনেকটা জানান দিয়েই । বলা যায় খুব স্বস্তি লাগছে । কারণ আজ শেরপুর টাইমস ডটকমের ষষ্ঠ জন্মদিন । প্রাণপ্রিয় এ সংবাদমাধ্যমটি আজ ছয় বছর পেরিয়ে সপ্তম বছরে প্রদার্পণ করছে । দু:সাহসিক এ সংগ্রামে সবার সঙ্গে আমিও ছিলাম হার না মানা এক সহযোদ্ধা হিসেবে।

যদি হেরে যেতাম কিংবা রক্ত চুক্ষকে চ্যালেঞ্জ করে সকল প্রতিকুলতাকে পায়ে মাড়িয়ে এগিয়ে যেতে না পারতাম তবে আমিও যে সমালোচকদের সমালোচনার বলি হতাম । ভয় কেটে গেছে বলবোনা তবে দিন গণনায় ছয়টি বছর কিন্তু কম সময় নয়।

প্রতিনিয়ত জন্ম নেয়া অনলাইন সংবাদপত্রের ভীড়ে শেরপুর টাইমস এগিয়ে যাচ্ছে তার আপন গতিতেই। প্রতিযোগিতায় প্রথম বা দ্বিতীয় হওয়ার লোভ কখনোই ছিলনা টাইমস পরিবারের। ২০১৩ সালে শেরপুর জেলায় যখন অনলাইন সংবাদপত্রের ধারা শুরু হয়নি, তখন যাত্রা শুরু করেছিল শেরপুর টাইমস। জেলাভিত্তিক প্রথম অনলাইন সংবাদমাধ্যম হিসেবে যাত্রা করা নতুনধারার এ গণমাধ্যমকে বেশ কয়েকবার শিকার হতে হয় তথ্য সন্ত্রাসীদের লোলুভ দৃষ্টির । কখনো কখনো অতি প্রিয়জনদের উপরে ভাল মানুষী লেবাস আর ভিতরে হিংসাত্নক মনোভাবের শিকারও হতে হয়েছে।

আকাশে-বাতাসে বিত্তবানদের টাকা কিংবা ডলার,পাউন্ড উড়লেও নতুন ধারার এ মিডিয়াতে বিনিয়োগ হয়নি কোন অর্থ । খুব একটা মিলেনি বিজ্ঞাপন, উপরন্ত কেউ কেউ সহযোগিতার হাত বাড়ালেও কোন কোন সহকর্মী হুমকি ধামকি দিয়েছেন কেন শেরপুর টাইমসকে বিজ্ঞাপন দেওয়া হলো । এমনি প্রতিকুল পরিবেশে শুধু মাটির টানে প্রিয় শেরপুরকে ময়মনসিংহ কিংবা জামালপুরের শেরপুর হিসেবে নয় “শেরপুর জেলা শেরপুর” হিসেবে পরিচিত করতে নিরলস চেষ্টা করে যাচ্ছে শেরপুর টাইমস ডটকম। বিত্তশালী কোন গোষ্ঠীর আজ্ঞাবহ না হয়েও কিভাবে শুধুমাত্র পেশা ও নেশার জোড়ে সর্বস্তরের জনগণকে তথ্য সেবা দেয়া যায় তারই প্রমাণ সৃষ্টি করতে মরিয়া হয়ে কাজ করছেন শেরপুর টাইমস পরিবার।

জেলায় ঘটে যাওয়া সমসাময়িক খবরগুলোর পাশাপাশি ইতিহাস-ঐতিহ্য, আলোকিত যারা, আন্দোলন সংগ্রাম,দৃষ্টিপাত ও পাঠকের কথা বিভাগে তুলে ধরা হচ্ছে এ জেলারই সূর্য্য সন্তানদের সমাজ বির্নিমানে অবদানের কথা, প্রকাশ করা হচ্ছে ধারাবাহিক ভাবে জেলার বরেণ্য ব্যক্তিদের জীবনী। যুগে যুগে কখনো কলমে বা সম্মুখ সমরে লড়াই করে যাওয়া সেই লড়াকুদের স্বরণ করে যাচ্ছে শেরপুর টাইমস তার নিজস্ব দ্বায়িত্বশীলতা থেকেই। এ যেন পূর্বসূরিদের ঋন শোধের প্রচেষ্টা মাত্র।

যাদের ভীত অতি মজবুত বলে ধারণা করা হতো তারাই যখন টিকতে পারছেন না এ অসময়ে ,অকাল মৃত্যুর শিকার হয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন তাদের কার্যক্রম কিংবা নাম মাত্র টিকিয়ে রেখেছেন হুজুকে জন্ম নেয়া গণমাধ্যমটিকে। তখন শেরপুর টাইমস পরিবারের প্রতিটি সদস্য হৃদয় নিংড়ানো ভালবাসা দিয়ে টিকিয়ে রেখেছেন সন্তানতুল্য শেরপুর টাইমস ডটকমকে। সবার ভালবাসায় শেরপুর টাইমস আজ পাঠক নন্দিত সংবাদমাধ্যমে পরিনত হয়েছে। প্রাপ্তিতে যোগ হয়েছে একটি নির্ভরযোগ্য নিউজ এজেন্সির খেতাব।

শেরপুর টাইমসের জন্মদিনে কৃতজ্ঞ চিত্তে শুভেচ্ছা জানাই শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও শেরপুর টাইমস পরিবারের মধ্যমনি,প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান ভাইকে। ফুলেল শুভেচ্ছা প্রিয় সম্পাদক এস এ শাহরিয়ার মিল্টন ভাইকে ,যার সঠিক নির্দেশনায় শেরপুর টাইমস এগিয়ে চলছে হাজারও প্রতিকুলতাকে জয় করে।

জন্মদিনের ভালবাসা জানাই উপদেষ্টা সম্পাদক রফিক মজিদ,ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা, বার্তা সম্পাদক এম.সুরুজ্জামান, প্রধান প্রতিবেদক সুজন সেন, প্রিয় সহযোদ্ধা রমেশ সরকার,জাহাঙ্গীর তালুকদার , ইমরান হাসান রাব্বী, শাকিল মোরাদ,জাহিদুল হক মনির, জিয়াউল হক জুয়েল, নাঈম ইসলাম, শেরপুর টাইমস ডটকমের ওয়েব ডেভোলোপার কোম্পানী শেরপুর বাজার আইটির টিম মেম্বার মুস্তাফিজুর রহমান স্বপ্ন, ইফতেখার হোসেন পাপ্পুসহ আমাদের অতি প্রিয় শেরপুর টাইমস পরিবারের শেরপুর জেলা ও ময়মনসিংহ বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের ।

“যদি লক্ষ্য থাকে অটুট,বিশ্বাস হৃদয়ে, তবে হবেই দেখা, দেখা হবে বিজয়ে” এ গানের কলির সঙ্গে গলা মিলিয়ে আমরাও বলতে পারি সব অনিশ্চয়তাকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাবে শেরপুর টাইমস । আমরা আশাবাদী মানুষ, সংগ্রাম করেই টিকে থাকতে হবে আমাদের । নিশ্চয় আল্লাহ সহায় হবেন, ইনশাল্লাহ। আবারো সবাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা , শুভজন্ম দিন শেরপুর টাইমস ডটকম।

নির্বাহী সম্পাদক,শেরপুর টাইমস
জেলা প্রতিনিধি, এস এ টিভি,শেরপুর।
মোবাইল: ০১৭৪০৫৮৮৯৮৮

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।