You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

“আমাদের শেরপুর” মোবাইল অ্যাপের প্রথম ভার্সন উন্মুক্ত

গারো পাহাড় ঘেরা শেরপুর জেলাকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে বিশেষ মোবাইল অ্যাপ তৈরি করেছে এক কলেজ শিক্ষার্থী। “আমাদের শেরপুর” নামে ওই মোবাইল অ্যাপটির নির্মাতা হচ্ছেন শেরপুর সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র ও শেরপুর টাইমস ডট কমের সহযোগী প্রতিষ্ঠান শেরপুর টাইমস টিভির বিভাগীয় সম্পাদক ইমরান হাসান রাব্বী। আজ বুধবার দুপুরে শেরপুর জেলা প্রশাসনের কনফারেন্স হল রজনীগন্ধায় জেলা ব্র্যান্ডিং বিষয়ক এক কর্মশালায় অ্যাপটির প্রথম ভার্সন প্রাথমিকভাবে উন্মুক্ত করা হয়।

এ সময় জেলা প্রশাসক ড. মল্লিক আনোয়ার হোসেনের সামনে অ্যাপটি ব্যবহারের সকল সুবিধাদি বর্ণনা করেন ওই শিক্ষার্থী। কর্মশালায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এটিএম জিয়াউল ইসলাম, সহকারী কমিশনার মনজুর আহসান, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আরাফাত উল আলম, জেলা শিক্ষা অফিসার সৈয়দ উদ্দীন, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর সহকারী পরিচালক সৈয়দ মোক্তার হোসেন, গণপূর্ত বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী নাজমুল আলম, স্থানীয় সরকার প্রকৌশলের নির্বাহী প্রকৌশলী মুজাহিদুল ইসলাম, শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  খালেদা নাসরিন, ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এজেডএম শরীফ হোসেন, সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী সুতপা চাকমাসহ গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সরকারি দফতরের প্রধানরা।

ইমরান হাসান রাব্বী বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির যুগে শেরপুর জেলাকে সবার কাছে পরিচিত করানোর জন্য শেরপুর জেলার তথ্য সমৃদ্ধ এই অ্যাপটি শেরপুরকে সবার কাছে পরিচিত করতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। বিশ্বের যে কোন প্রান্তে বসবাসকারি বাংলাদেশীরা এই অ্যাপটির মাধ্যমে পর্যটন এলাকা  শেরপুরকে জানতে পাবে। তিনি বলেন, আইটি প্রতিষ্ঠান বিডি আইটি জোনের কারিগরি সহযোগিতায় নির্মিত এই মোবাইল অ্যাপটিতে জেলার ইতিহাস ঐতিহ্য, পটভূমিসহ জেলার পাঁচটি উপজেলার সাধারণ তথ্যাবলী, যোগাযোগ ও জনপ্রতিনিধিদের প্রয়োজনীয় ফোন নম্বর সংযুক্ত করা হয়েছে।

স্বপ্ন দেখেন শেরপুরকে ময়মনসিংহ শেরপুর বা জামালপুর শেরপুর নয় শেরপুরকে নিজের স্বকীয়তায় সবাই শেরপুর হিসেবেই চিনবে। মোবাইল অ্যাপ তৈরির পাশাপাশি তিনি শেরপুর জেলার পর্যটন নিয়ে বেশ কিছু প্রামাণ্যচিত্রও তৈরি করেছেন। দায়িত্ব পালন করছেন শেরপুর টাইমস টিভির বিভাগীয় সম্পাদক হিসেবে। এরই ধারাবাহিকতায় শেরপুর নিয়ে ইতোমধ্যে বেশ কিছু প্রামাণ্যচিত্রও তৈরি করা হয়েছে। স্বল্প সময়ের ব্যবধানে অনলাইনে প্রতিটি ভিডিও এক লাখেরও বেশিবার দেখা হয়েছে। সহকর্মী ইফতেখার পাপ্পু, নাঈম ইসলাম, মেহেদী সাব্বির, জুবাইদুল ইসলাম, শাকিল মুরাদ, সানী ইসলাম ও জাহিদুল হককে সাথে নিয়ে শেরপুর ব্র্যান্ডিং নিয়ে কাজ করে শেরপুর জেলাকে পরিচিত করাতে চান বিশ^ দরবারে।

ইমরান হাসান রাব্বীর বাড়ি জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলায়। বাবা ব্যবসায়ী ও মা স্কুল শিক্ষিকা। ২০০৯ সালে এসএসসি ও ২০১১ সালে এইচএসসি পাশ করে বর্তমানে শেরপুর সরকারি কলেজে অধ্যয়ন করছেন। ছোট বেলা থেকেই তথ্য প্রযুক্তির সাথে সখ্যতার কারণে নিজ প্রতিষ্ঠান বিডি আইটি এক্সপার্টের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ায় আইটি বিষয়ক সেবা দিয়ে আসছেন।

শেরপুরকে বিশ্ব  দরবারে তুলে ধরতে ইমরানের বিশেষ এ মোবাইল অ্যাপ তৈরীতে অভিন্দন জানিয়েছেন শেরপুর টাইমস প্রকাশক আনিসুর রহমান, সম্পাদক এসএ শাহরিয়ার মিল্টন, উপদেষ্টা সম্পাদক রফিক মজিদ, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা, নির্বাহী সম্পাদক মহিউদ্দিন সোহেল, বার্তা সম্পাদক এম সুরুজ্জামানসহ কুশলীরা।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!