You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

আইনজীবীদের সহযোগিতা ছাড়া ভাল বিচারক হওয়া যায় না

আইনজীবীদের সহযোগিতা ছাড়া ভাল বিচারক হওয়া সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি জে.বি.এম হাসান। তিনি ২২ জুন শুক্রবার সকালে শেরপুর জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী পরিষদ সভাকক্ষে আইনজীবী নেতৃবৃন্দের সাথে এক মতবিনিময় সভায় ওই মন্তব্য করেন।

ওইসময় তিনি বলেন, আইন বিষয়ে অভিজ্ঞ ও সিনিয়র আইনজীবীদের সহযোগিতা নিয়েই বিচারকরা তাদের কর্মক্ষেত্রে চৌকষ হয়ে উঠেন। যে বারে যত জানাশোনা ও অভিজ্ঞ আইনজীবী রয়েছেন, সেই বারের আওতায় বিচার অঙ্গনের বিচারকরাও ততই দক্ষ হয়ে উঠেন। তিনি উচ্চ আদালতের কয়েকজন সিনিয়র আইনজীবীর নাম উচ্চারণ করে বলেন, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার প্রশ্নে তাদের তুলনায় আমরা এখনও শিশু।

তিনি বলেন, আইন পেশায় দক্ষতা অর্জনের লক্ষ্যে আইন বিষয়ক পড়াশোনার বিকল্প নেই। এজন্য একটি বারের সমৃদ্ধ লাইব্রেরী সেই বারের আইনজীবীদেরকেও সমৃদ্ধ করে তোলে। তিনি আরও বলেন, বিচারপ্রার্থী মানুষের ন্যায়বিচার নিশ্চিতকরণে বেঞ্চ ও বারের সমন্বয় সাধনের কোনো বিকল্প নেই। সেইসাথে তিনি ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে বিচারক ও আইনজীবীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের স্বচ্ছতা ও আন্তরিকতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া তিনি বার-বেঞ্চের ভেতর অপ্রত্যাশিত সমস্যার ক্ষেত্রে আলোচনার মাধ্যমে তা সমাধানের পরামর্শ দেন।

অন্যদিকে বার নেতৃবৃন্দ বলেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও শেরপুরে বিচার বিভাগে শতভাগ স্বচ্ছতা ফিরে এসেছে। জেলা জজ ও চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে জজশীপ ও ম্যাজিস্ট্রেসির বিচারকদের কার্যক্রমে গতিশীলতা সৃষ্টি হয়েছে। বিচার বিভাগের সাথে আইনজীবীরাও অত্যন্ত সুন্দর সম্পর্ক বজায় রেখে কাজ করছেন। এছাড়া বহুল প্রতীক্ষিত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণেও বেঞ্চ ও বারের তরফ থেকে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট রফিকুল ইসলাম আধারের সভাপতিত্বে ওই মতবিনিময় সভায় বিচারকদের মধ্যে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ এম.এ নূর, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুদীপ্ত দাস, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) খন্দকার খালিদ বিন নূর, যুগ্ম জেলা জজ হারুন অর রশীদ ও সুদীপ্তা সরকার, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবীর তালুকদার ও নাহিদ সুলতানা, এনডিসি মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে আইনজীবী নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতবিনিময়ে অংশ নেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খন্দকার মাহবুবুল আলম রকীব, সহ-সভাপতি এডভোকেট হরিদাস সাহা, সহ-সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ইসমাইল হোসেন, নির্বাহী সদস্য এডভোকেট নরেশ চন্দ্র দে, এডভোকেট আশরাফুন্নাহার রুবী প্রমুখ। এরপর বিচারপতি জে.বি.এম হাসান জেলা বার লাইব্রেরী ও বার মিলনায়তনসহ অন্যান্য কক্ষ পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এর আগে তিনি জেলা জজের আমন্ত্রণে আদালত পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য, বিচারপতি জে.বি.এম হাসান ২১ জুন ২ দিনের ব্যক্তিগত সফরে শেরপুরে আসেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!