You dont have javascript enabled! Please download Google Chrome!

অধিকাংশ মন্ত্রী-এমপি থাকবেন এলাকায়

বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ দুয়ারে কড়া নাড়ছে। ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে নববর্ষকে বরণের জন্য। পুরনো সব গ্লানি ধুয়েমুছে চলে যাক- এ কামনা যেন সবার।

নতুন সূর্যকে বরণে ব্যস্ত শহর, নগর ও গ্রাম। সারাদেশের বহু গ্রামের শতবর্ষী বটতলা হাটখোলায় মেলা বসবে। তাতে অংশ নেবে আপামর জনগণ। বিশেষ করে এ মেলাকে কেন্দ্র করে তরুণ-তরুণীদের তর যেন আর সইছে না।

দেশের আপামর জনসাধারণের সঙ্গে শরিক হয়ে মন্ত্রী-এমপিরাও এ আয়োজনে অংশ নেবেন। সাধারণ মানুষের সঙ্গে আনন্দ-উল্লাসে মেতে উঠবেন। দেশের প্রায় প্রতিটি জেলা-উপজেলায় বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

মন্ত্রী-এমপিরা নিজ নিজ এলাকায় যাবেন, ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করবেন, নেতাকর্মীদের নিয়ে পান্তা-ইলিশ খাবেন। আরও খাবেন খই, মোয়া, বাতাসা। সঙ্গে মেতে উঠবেন ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলায়। নাগরদোলায় উঠে আনন্দ করবে শিশুরা।

দশম জাতীয় সংসদের ২০তম অধিবেশন শেষ হয়েছে গতকাল বৃহস্পতিবার। এমনিতেই মন্ত্রী-এমপিরা এখন ছুটি পেলেই ঘন ঘন এলাকায় যান। কারণ সামনে নির্বাচন। এলাকায় নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ, কর্মপরিকল্পনা, সংগঠনকে গতিশীল করাসহ নানা কাজ থাকে। এবার অধিবেশন শেষ, এর মধ্যে এসেছে পহেলা বৈশাখ।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পহেলা বৈশাখকে কেন্দ্র করে এবার অধিকাংশ এমপি-মন্ত্রী এলাকায় যাবেন। কারণ প্রতিটি জেলা-উপজেলায় বৈশাখী মেলা অনুষ্ঠিত হয়। মেলাগুলো সাধারণত এমপি ও মন্ত্রীরাই উদ্বোধন করেন। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটবে না।

কথা বলে জানা গেছে, মৎস্য ও প্রাণী সম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ পহেলা বৈশাখে খুলনায় থাকবেন। খুলনার ফুলতলায় ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করবেন। এছাড়া ছুটির দু’দিন এলাকার নেতাকর্মীদের সঙ্গে সময় কাটাবেন।

বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড়ের সাংগঠনিক অবস্থা নিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদর সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জাগো নিউজকে জানান তিনি। পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল (লোটাস কামাল) জাগো নিউজকে বলেন, এবার পহেলা বৈশাখ নিজ এলাকা কুমিল্লায় করব। সেখানে কয়েকটি বৈশাখী মেলার উদ্বোধন ছাড়াও দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করব। এছাড়া বিভিন্ন এলাকার সাংগঠনিক অবস্থার খবরও নেবেন তিনি।

পহেলা বৈশাখে কোথায় কাটাবেন- এমন প্রশ্নের জবাবে বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল জাগো নিউজকে বলেন, এলাকায় যাব। লক্ষ্মীপুর স্টেডিয়ামে বিশাল বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে। এ মেলার উদ্বোধন করব। তিনি বলেন, এবার মন্ত্রী হিসেবে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈশাখী উদযাপন করব।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি নিজ নিজ এলাকায় পহেলা বৈশাখ পালন করবেন বলে জানান।

গতকাল বৃহস্পতিবার ছিল জাতীয় সংসদে বেসরকারি কার্যদিবস। এমপিদের কথাবার্তা এবং তাড়াহুড়া দেখে বোঝা গেছে প্রায় অধিকাংশ সংসদ সদস্যই নিজ নিজ এলাকায় যাবেন এবং এলাকার নেতাকর্মীদের সঙ্গে পহেলা বৈশাখ উদযাপন করবেন।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এলাকায় যাবেন না। তিনি ঢাকাতেই থাকবেন এবং রমনার বটমূলে ছায়ানটের অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন বলে জানান।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের

error: Alert: কপি হবেনা যে !!